মুসলিমরা আইন হাতে তুলে নিলে হিন্দুরা পালানোর পথ খুঁজে পাবে না, ঘৃণা ছড়ালেন মৌলানা তৌকির রাজা খান

0
48

হিংসায় উস্কানি দেওয়া, হিন্দু বিরোধী মন্তব্য করা এবং জিহাদের নাম করে হিন্দু গণহত্যার ডাক দেওয়া এক শ্রেণীর ইসলামিক ধর্মগুরুর কাছে জলভাত ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। অন্যদিকে সেকুলার ও লিবারেল লবি ধর্মনিরপেক্ষতা ও বাকস্বাধীনতার দোহাই দিয়ে এসব দেখেও না দেখার ভান করে এড়িয়ে যাচ্ছে। এবার সরাসরি হিন্দুদের বিরুদ্ধে হিংসায় উস্কানি দেওয়ার মতো মন্তব্য করলেন উত্তর প্রদেশের পরিচিত মৌলানা তৌকির রাজা।

উল্লেখ্য, মৌলানা তৌকির রাজা ইত্তিহাদ-ই-মিল্লাত কাউন্সিল পার্টির প্রধান। গত ৭ই জানুয়ারি এই পার্টির ডাকে উত্তর প্রদেশের বরেলিতে একটি জনসভা অনুষ্ঠিত হয়। সেই জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে হিন্দু সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে ঘৃণা ভরা মন্তব্য করেন।

সভায় হরিদ্বার ধর্ম সংসদ সম্বন্ধে বলতে গিয়ে চরম হিন্দু বিরোধী মন্তব্য করে বসেন মৌলানা তৌকির রাজা। সভা থেকে দেশের হিন্দুদের সতর্ক করে বলেন, ‛যদি আমরা উঠে দাঁড়াই, তবে তোমরা ভারতে লুকানোর জায়গা পাবে না।’

বক্তব্য রাখতে গিয়ে ২০ লাখ মুসলিম জনতার সামনে মৌলানা তৌকির রাজা বলেন, ‛আমি আমার মুসলিম যুবকদের মধ্যে রাগ দেখি এবং আমার ভয় হয় যদি কোনোদিন সেই রাগ ফেটে পড়ে, যদি আমি ওদের ওপর থেকে নিজের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলি…আমি আমার হিন্দু ভাইদের সতর্ক করে দিতে চাই…যদি আমার মুসলিম যুবকেরা আইন হাতে তুলে নিতে বাধ্য হয়, তবে তোমরা ভারতের কোথাও লুকানোর জায়গা পাবে না।’

তবে এমন হিন্দু বিরোধী ও ঘৃণা ভরা মন্তব্য প্রথম নয়। এর আগে CAA বিরোধী আন্দোলনের সময়ও চরম ঘৃণা ভরা মন্তব্য করেছিলেন তৌকির রাজা খান। CAA আইন বাতিল না করা হলে দেশে রক্তের বন্যা বইয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়েছিলেন তৌকির রাজা খান।

প্রসঙ্গত, এমন হিন্দু বিরোধী একজন মৌলনাকে বারবার ‛ধর্মনিরপেক্ষ’ আখ্যা দিয়ে এসেছে কংগ্রেস ও সমাজবাদী পার্টি। বিগত নির্বাচনগুলিতে কংগ্রেস দেশের মধ্যে ‛ধর্মনিরপেক্ষতা’ মজবুত করতে এই দলের সঙ্গে জোটও করেছিল।

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.