মমতা ব্যানার্জির অনুপ্রেরণায় নবদ্বীপে চালু হচ্ছে মহাপ্রভু শ্রীচৈতন্য সংস্কৃত গবেষণা কেন্দ্র

0
34

দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান। নদীয়ার নবদ্বীপে চালু হচ্ছে মহাপ্রভু শ্রীচৈতন্য সংস্কৃত গবেষণা কেন্দ্র। আগামীকাল সোমবার এটির উদ্বোধন হওয়ার কথা। এই সংস্কৃত গবেষণা কেন্দ্রটি কলকাতার সংস্কৃত কলেজের দ্বিতীয় ক্যাম্পাস হিসেবে কাজ করবে। আর এই গবেষণা কেন্দ্র ঘিরে আশায় বুক বাঁধছেন নবদ্বীপবাসী। এই গবেষণা কেন্দ্রের হাত ধরেই সংস্কৃত জ্ঞান চর্চার পুরোনো গৌরব ফিরে পাবে নবদ্বীপ, আশা তাদের।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ২৬শে ফেব্রুয়ারি এই সংস্কৃত গবেষণা কেন্দ্রের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নবদ্বীপের গৌরাঙ্গ সেতু থেকে মাত্র কয়েক কিলোমিটার দূরে মাজদিয়া-পানশিলা গ্রাম পঞ্চায়েতের ফরেস্টডাঙ্গা গ্রামে নির্মিত হয়েছে সংস্কৃত গবেষণা কেন্দ্রের ভবন ও ক্যাম্পাস। পাঁচ তলা ভবনে ইতিমধ্যেই নির্মিত হয়েছে ৯৬টি কক্ষ। গবেষকদের জন্য থাকছে অতিথিশালা, আবাসন, ক্যান্টিন ইত্যাদি।

বেশ কিছুদিন আগেই নবদ্বীপে প্রশাসনিক বৈঠকে এসেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই সময় এই গবেষণা কেন্দ্রের নাম মহাপ্রভু শ্রীচৈতন্য-র নামে নির্দেশ দিয়েছিলেন তিনি।

স্থানীয় সংস্কৃত অনুরাগীদের অনেকেই এই গবেষণা কেন্দ্রের নির্মাণের জন্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। তাদের কথায়, নবদ্বীপের মতো শহরে অনেক পুরোনো সংস্কৃত টোল ও পাঠশালা রয়েছে। এগুলোকে আরও ভালোভাবে পুনির্জীবিত করলে সংস্কৃত চর্চা ও গবেষণা আরও বাড়বে। এখানকার অনেক মঠ ও মন্দিরে প্রচুর প্রাচীন সংস্কৃত পুঁথি রয়েছে। সেসবের টানে এই গবেষণা কেন্দ্র দেশ বিদেশ থেকে গবেষণা করতে এখানে আসবেন বলে আশা প্রকাশ করেন তাঁরা।

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.