কলকাতা: নভনীত সোনি ও নন্দ দেশাইকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপালো করিম হোটেলের কর্মচারীরা

0
42

সামান্য বচসাকে কেন্দ্র দোকানে আসা দুই কাস্টমারকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপালো এক মুসলিম হোটেলের কর্মচারীরা। ধারালো অস্ত্রের আঘাতে একজনের মাথায় গভীর ক্ষতের সৃষ্টি হয়। অন্যজনের শরীরেও গুরুতর আঘাত লাগে। বর্তমানে ওই দুই যুবক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। গত ২৬শে ডিসেম্বর রাতে ঘটনাটি ঘটে কলকাতার হাতিবাগানের অরবিন্দ সরণীতে। ইতিমধ্যেই ওই দোকানের অভিযুক্ত কর্মচারীদের বিরুদ্ধে FIR দায়ের করা হয়েছে। তবে এখনও পর্যন্ত গ্রেপ্তারির কোনও খবর নেই।

জানা গিয়েছে, আহত দুই যুবকের নাম নন্দ দেশাই ও নভনীত সোনি। নন্দ দেশাইয়ের বোন তাঁর ইনস্টাগ্রাম পোস্টে ঘটনার বিস্তারিত বিবরণ দিয়ে লিখেছেন যে ঘটনার দিন অর্থাৎ ২৬শে ডিসেম্বর রাত ১১টা ১৫ নাগাদ তাঁর দাদা ও তাঁর বন্ধু হাতিবাগানের করিম হোটেলে ডিনার করতে যান। সেখানে বিল মেটানোর পর খাবারের জন্য অপেক্ষা করতে থাকেন। খাবার আসে। কিন্তু কিছু পেয়াঁজ চাওয়ায় ওই দুজনের সঙ্গে হোটেলের ওয়েটারের বচসা শুরু হয়। সেই সময় কয়েকজন ওয়েটার ওদেরকে ঘিরে ধরে।

সেই সময় এক ওয়েটার পিছন থেকে এসে নন্দ দেশাইয়ের পিছন থেকে এসে তাঁর মাথায় ধারালো ছুরি দিয়ে কোপ মারে। তখন নন্দ দেশাই নীচে পড়ে যায়। তাকে বাঁচাতে তাঁর বন্ধু নভনীত কয়েকজন ওয়েটারকে ধাক্কা মারেন। মেঝেতে পড়ে যাওয়া নন্দ দেশাইকে তোলার চেষ্টা করছিলেন, সেই সময় নভনীতের মাথায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপ মারা হয়। তারপর দুজনকে হোটেলের বাইরে ফেলে দিয়ে শাটার বন্ধ করে দেয়।

ছবি: FIR কপি

পরে দুজনে হাসপাতালে পৌঁছে যান। সেখানেই চিকিৎসা হয় দুজনের। পরে থানায় অভিযোগ করতে যান। কিন্তু পুলিশ প্রথমে FIR নিতে চায়নি, এমনটাই অভিযোগ। পরে FIR নেয় পুলিশ। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১১৪ ও ৩২৬ ধারায় মামলা দায়ের করেছে পুলিশ।

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.