হিন্দু ধর্ম গ্রহন করে বিয়ে, পরে ইসলাম গ্রহন করতে স্ত্রীকে অত্যাচার, গ্রেপ্তার ফাহিম কুরেশি

0
81

উত্তর প্রদেশের সুলতানপুর থেকে এক চমকে দেওয়ার মতো ঘটনা সামনে এসেছে। এক মুসলিম যুবক হিন্দু ধর্ম গ্রহন করে এক হিন্দু যুবতীকে প্রথমে বিয়ে করে। পরে তাঁর স্ত্রীকে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করতে লাগাতার অত্যাচার করে থেমে থাকেনি সে। স্ত্রীকে গর্ভপাত করানো থেকে শারীরিক অত্যাচার- কিছুই বাকি থাকেনি। শেষে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করার পরই গ্রেপ্তার করা হয় তাকে।

জানা গিয়েছে, ওই যুবকের নাম ফাহিম কুরেশি। সে সুলতানপুরের নারমল চৌরাস্তা এলাকার বাসিন্দা। আর ওই তরুণী সুলতানপুর জেলার দরিয়াপুর এলাকার বাসিন্দা। ওই তরুণীর অভিযোগ, ফাহিমের সঙ্গে বিগত ১০ বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক ছিল তাঁর। কিন্তু বারবার বিয়ে করতে বলা সত্বেও বিয়ে করতে রাজি ছিল না ফাহিম। শেষমেশ ২০১৮ সালে দুজনে বিয়ে করে। সে সময় নিজের ইচ্ছায় হিন্দু ধর্ম গ্রহন করে ফাহিম।

কিন্তু বিয়ের কিছুদিন পরেই ভোল পাল্টে যায় ফাহিমের।ওই তরুণীর অভিযোগ, ফাহিম বিয়ের কয়েকমাস পর থেকেই ইসলাম ধর্ম গ্রহন করার জন্য লাগাতার চাপ সৃষ্টি করতে থাকে ফাহিম। এমনকি ২০১৯ সালে তাঁর গর্ভপাত করায় ফাহিম, অভিযোগ ওই তরুণীর। পরে ২০২০ সাল থেকে শুরু লাগাতার শারীরিক নির্যাতন। পরে তাকে ফেলে পালিয়ে যায় ফাহিম, অভিযোগ তরুণীর।

শেষে সুলতানপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ওই তরুণী, যার নম্বর -১০৮২/২০২১। অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ ফাহিম কুরেশির বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪৯৮A, ৪৯৪, ৩১৩ ও ৫০৬ ধারায় মামলা দায়ের করে পুলিশ। পরে তদন্তে নেমে রবিবার ফাহিম কুরেশিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.