আসাম: ট্রাইব্যুনালের ভুলে বিদেশি তকমা, ‛নাগরিকত্বহীন’ অবস্থায় মৃত্যু সুখদেব রী-র

0
15

গত বছর ডিসেম্বর মাসে নাগরিকত্বের অপেক্ষা করতে থাকা ১০৪ বছরের বৃদ্ধ চন্দ্ৰধর দাস ডি-ভােটার তকমা নিয়ে পৃথিবী থেকে বিদায় নিয়েছিলেন। এগারাে মাস পর
আবার একই ঘটনা ঘটলো।

হাইলাকান্দির সুখদেব রী নামের ঘােষিত বিদেশি শুক্রবার রাতে হৃদরােগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। ২০১৬ সালে সুখদেব রী-কে একতরফা বিচারে বিদেশি
ঘােষণা করেছিল হাইলাকান্দি ট্রাইব্যুনাল। সম্প্রতি
গৌহাটি হাইকোর্ট হাইলাকান্দি ট্রাইব্যুনালকে নির্দেশ দেয় তারা যেন সুখদেব রী-কে নিজের নাগরিকত্ব প্রমাণের আরেকটি সুযােগ দেন। ৩ ডিসেম্বর মামলার শুনানির দিন নির্ধারিত হয়েছিল। তবে এর আগেই তিনি
নাগরিকত্বহীনতার যন্ত্রণা কাটিয়ে ইহলােক ত্যাগ করেছেন।

২০১২ সালের একটি মামলাকে ভিত্তি করে ২০১৬ সালের ২০ এপ্রিল সুখদেব রী-কে একতরফা বিচারে
বিদেশি ঘােষণা করেছিল হাইলাকান্দি
ট্রাইব্যুনাল। তাঁর তিন বছরের জেল হয়। পরবর্তীতে দুই বছর জেল খাটার পর করোনা মহামারীর সময়ে তিনি মুক্তি পান। পরে তাঁর মামলার শুনানির দিন ধার্য হয় ৩রা ডিসেম্বর। সেই সঙ্গে গৌহাটি সুখদেব রি-এর বিষয়টিকে মানবিক দিক থেকে বিচার করারও নির্দেশ দিয়েছিল। কিন্তু তার আগেই নাগরিকত্বহীনতা নিয়ে ইহলোক ত্যাগ করলেন সুখদেব।

প্রসঙ্গত, বংশপরম্পরায় চা বাগানের শ্রমিক সুখদেব রী।
হাইলাকান্দি ফরেনার্স ট্রাইব্যুনাল থেকে আইনজীবীর
খরচ সামলাতে না পেরে ফরেনার্স ট্রাইব্যুনালে যাওয়া
ছেড়ে দিয়েছিলেন। এরফলে একতরফা রায়ে বিদেশি
ঘােষণা করা হয়। তিন বছরের বেশি সময় ধরে শিলচর
ডিটেনশন ক্যাম্পে ছিলেন তিনি। ২০২০ সালের
ফেব্রুয়ারি মাসের ২৬ তারিখে জামিনে মুক্তি পান তিনি।

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.