ত্রিপুরা: সোনামুড়ায় জনতার মারে বাংলাদেশি গরু চোরের মৃত্যু

0
80

রাতের অন্ধকারে সীমান্ত পেরিয়ে ভারতে গরু চুরি করতে এসে ধরা পড়ে গেলো এক বাংলাদেশি গরু চোর। পরে জনতার মারে মৃত্যু হলো ওই বাংলাদেশির। ঘটনা ত্রিপুরার সোনামুড়ার অন্তর্গত কমলনগর গ্রামের।

জানা গিয়েছে, শনিবার রাতে তিন জন কমলনগর গ্রামের লিটন পালের বাড়িতে গরু চুরি করতে আসে। সেই সময় গরুর ডাকে লিটন বাবুর ঘুম ভেঙে যায়। তখন তিনি বাইরে এসে দেখেন যে তিন ব্যক্তি গোয়াল থেকে গরু নিয়ে পালিয়ে যাচ্ছে। লিটন বাবু বাধা দিলে ছুরি নিয়ে হামলা চালায় গরু চোর। ছুরির আঘাতে একটি কানের অনেকটা অংশ কেটে যায়। সেই সময় তিনি চিৎকার জুড়ে দিলে প্রতিবেশীরা ছুটে আসে। লোকজনকে দেখে গরু ফেলে পালানোর চেস্টা করে চোরেরা। সেই সময় একজনকে হাতেনাতে ধরে ফেলেন গ্রামবাসীরা।

তারপর শুরু হয় বেধড়ক মার। গ্রামবাসীদের মারে একসময় লুটিয়ে পড়েন ওই চোর। পরে খবর পেয়ে দেহ উদ্ধার করে নিয়ে যায় পুলিশ। সূত্রের খবর, মৃত ব্যক্তির প্যান্টের পকেট থেকে বাংলাদেশি টাকা, বাংলাদেশি কোম্পানির সিম কার্ড সমেত মোবাইল ফোন এবং বাংলাদেশি পরিচয়পত্র পাওয়া গিয়েছে। ব্যক্তির নাম জানা না গেলেও বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গিয়েছে যে ওই ব্যক্তি বাংলাদেশের কুমিল্লার বাসিন্দা।

উল্লেখ্য, ত্রিপুরার বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী গ্রামগুলিতে বাংলাদেশি গরু চোরদের দাপট নতুন নয়। পার্শ্ববর্তী রাজ্য আসামেও এমন ঘটনা প্রায়ই শোনা যায়। এই বছরের জুন মাসে ত্রিপুরার খোয়াই জেলায় একই ধরনের ঘটনা ঘটেছিল। গ্রামবাসীরা দুই বাংলাদেশি গরু চোরকে ধরে ফেলেছিলেন।

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.