বাংলাদেশ: সাতক্ষীরায় প্রাচীন শ্মশানের জমি দখল করে রাস্তা নির্মাণ করছে আওয়ামী লীগ সরকার

0
75

বাংলাদেশে এতদিন দুষ্কৃতীরা মন্দির কিংবা শ্মশানের জমি দখল করতো- এমন খবর প্রায়শঃই শোনা যেত। কিন্তু সংখ্যালঘু হিন্দু সম্প্রদায়ের শ্মশান দখল করে রাস্তা নির্মান করছে খোদ সরকারি দপ্তর, এবার এমন ঘটনার খবর এলো বাংলাদেশের সাতক্ষীরা জেলা থেকে।

জানা গিয়েছে, সাতক্ষীরা জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার পাউখালী। এখানেই রয়েছে প্রাচীন শ্মশান। স্থানীয়রা এটাকে মহাশ্মশান নামেই ডাকেন। এর পাশেই রয়েছে কালী মন্দির। আশেপাশের একাধিক হিন্দুদের একমাত্র ভরসা এই শ্মশান। কিন্তু হঠাৎই উপজেলা কতৃপক্ষ শ্মশানের উপর দিয়ে রাস্তা তৈরি করার প্রকল্প হাতে নেয়। স্থানীয় হিন্দুদের আপত্তি সত্বেও তাতে কর্ণপাত করেনি প্রশাসন।

পাউখালি শ্মশানে পাউখালি, ভদ্রখালি, কুলিয়া , দিয়া, বাজারগ্রাম, কালীগঞ্জসহ কয়েকটি গ্রামের হিন্দু সম্প্রদায়ের মৃতদেহ সৎকার করা হয় এক’শ বছর আগে থেকে। পাউখালি ব্রীজ থেকে মৌতলা পর্যন্ত আদি যমুনা নদীর পাশ দিয়েই প্রায় দু’ কিলোমিটার রাস্তার নির্মাণ খরচ ধরা হয়েছে দু’ কোটি ৭০ লাখ টাকা। জনৈক ঠিকাদার রফিকুল ইসলাম এর নির্মাণ কাজের দায়িত্ব পেলেও রাস্তা নির্মাণ করছেন মতিয়ার রহমান ওরফে ভাটা মতি। গত বছরের মাঝামাঝি সময়ে রাস্তা নির্মাণের কাজ শুরু হলেও ঠিকাদার শ্মশান সমস্যার সমাধান না করেই কাজ অব্যহত রেখেছেন।

হিন্দু মহাজোট কালীগঞ্জ শাখার সাধারণ সম্পাদক গোপাল মণ্ডল বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে শ্মশানের উপর দিয়ে পিচের রাস্তা বানানো হচ্ছে। তাহলে অন্য দলের সময়কালে মন্দিরের উপর দিয়েও রাস্তা হলে প্রতিবাদ করার কিছু থাকবে না।

এমন পরিস্থিতিতে শঙ্কিত স্থানীয় হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষজন। মৃতদেহ কোথায় সৎকার করবেন তাঁরা, তা ভেবেই শঙ্কিত। ইতিমধ্যেই রাস্তার কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। আর তার ফলে শ্মশানের জমি ছোট হয়ে এসেছে অনেকটা। স্থানীয় হিন্দুদের অভিযোগ, আওয়ামী লীগ নেতাদের কাছে সমস্যার কথা জানানো হলেও, তাঁরা শুধুই মৌখিক আশ্বাস দিয়ে দায় সারছেন।

Image credits: u71news

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.