বাবরি ভাঙার প্রতিশোধ নিতে তামিলনাড়ুতে একাধিক মন্দিরে ভাঙচুর, বসিরহাটে গ্রেপ্তার বাংলাদেশি জাহাঙ্গীর বিশ্বাস

1
170

বাবরি ভাঙার প্রতিশোধ বাংলাদেশ থেকে ভারতে ঢুকেছিলো সে ও তাঁর সঙ্গীরা। তারপর পশ্চিমবঙ্গ হয়ে তামিলনাড়ুতে পৌঁছে যায় তাঁরা। সেখানে রাজমিস্ত্রীর কাজের ফাঁকে একাধিক মন্দিরে হামলা চালিয়ে মূর্তি ভাঙচুর করেছে সে। কিন্তু তামিলনাড়ু পুলিশ ধরপাকড় চালাচ্ছে, তাই বাংলাদেশে পালিয়ে যেতে চেয়েছিল সে। কিন্তু সীমান্ত পেরোনোর আগেই বিএসএফ জওয়ানরা পাকড়াও করে তাকে। ওই বাংলাদেশির নাম জাহাঙ্গীর বিশ্বাস।

জানা গিয়েছে, গত ২৫শে আগস্ট, বুধবার জাহাঙ্গীর বিশ্বাসকে গ্রেপ্তার করে বিএসএফ। সে বাংলাদেশের সাতক্ষীরার বাসিন্দা। কয়েক বছর আগেই সে পশ্চিমবঙ্গ সীমান্ত দিয়ে এদেশে অনুপ্রবেশ করে। তারপর চলে যায় তামিলনাড়ুতে। সেখানে রাজমিস্ত্রীর কাজ করার ফাঁকে জিহাদি মতাদর্শ প্রচার ও হিন্দু বিরোধী প্রচার চালিয়ে যাচ্ছিল। বাবরি ভাঙার প্রতিশোধ নিতে তামিলনাড়ুর একাধিক মন্দিরে হামলা চালায় সে। তাকে খুঁজছিল তামিলনাড়ু পুলিশ। সেই মত একাধিক রাজ্যে তাঁর ছবি পাঠানো হয়েছিল।

এছাড়াও, আফগানিস্তান তালিবানের দখলে আসায় নতুন করে নাশকতার পরিকল্পনা করছিল সে। ফেসবুকে বাবরি ভাঙার প্রতিশোধ নেওয়ার ডাক দিয়েছিল ওই বাংলাদেশি জঙ্গি।

উল্লেখ্য, বিগত বেশ কয়েকমাস ধরেই তামিলনাড়ুর একাধিক হিন্দু মন্দিরে হামলার ঘটনা সামনে এসেছে। কিন্তু তদন্তে নেমে দুষ্কৃতীদের প্রথমে খোঁজ পাচ্ছিলেন না গোয়েন্দারা। তারপর দুষ্কৃতীদের ধরতে বিশেষ টিম গঠন করে তামিলনাড়ু পুলিশ। তারপরই ধরপাকড় শুরু হয়। তখনই বাংলাদেশে পালানোর ছক কষে সে।

সেই মত তামিলনাড়ু থেকে পশ্চিমবঙ্গে আসে। বসিরহাটের ঘোজাডাঙ্গা সীমান্তে বিএসএফের ১৫৩ নম্বর ব্যাটালিয়নের জওয়ানরা তাকে গ্রেপ্তার করে। পরে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয় তাকে। পরে মামলার ভার নিজেদের হাতে নেয় NIA। পুরো ঘটনায় জঙ্গি যোগ খতিয়ে দেখছেন গোয়েন্দারা।

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.

1 COMMENT

Comments are closed.