কাবুলের জেল ভেঙে কয়েদীদের মুক্তি দিলো তালিবান, খুশি কেরালার ইসলামিক স্টেট যৌনদাসী ফাতিমার পরিবার

0
178

তালিবানের দখলে আফগানিস্তান আসার পরই তাদের বর্বতার ঘটনায় কেঁপে উঠছে বিশ্বের মানুষ। এরই মধ্যে একটি রিপোর্ট সামনে এসেছে। সেই রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে যে তালিবানের জিহাদিরা কাবুলের জেল ভেঙে কয়েদীদের মুক্ত করে দিয়েছে। আর তাতেই খুশি কেরালার একটি পরিবার।

একটি ভিডিও সামনে এসেছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে যে কাবুলের জেলে হালকা চালিয়েছে তালিবান। তারপর জেলে থাকা কয়েদীদের মুক্তি দেওয়া হয়েছে। তাঁরা দল বেঁধে জেল থেকে বেরিয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু এই ঘটনার পক্ষে এখনও পর্যন্ত তালিবানের কোনো বক্তব্য সামনে আসেনি।

কিন্তু এই খবরে খুশি কেরালার একটি পরিবার। কারণ কাবুলের ওই জেলেই বন্দি ছিলেন ইসলামিক স্টেট জঙ্গি ফাতিমা। তাঁর মা বিন্দু তালিবানের দ্বারা এই জেল ভাঙার ঘটনাকে অলৌকিক হিসেবে উল্লেখ করছেন।

উল্লেখ্য, বিন্দুর কন্যা নিমিষা ইসলামিক স্টেটের জঙ্গিদের দ্বারা প্রভাবিত হয়ে ইসলাম ধর্মে ধর্মান্তরিত হন। তাঁর নতুন নাম হয় ফাতিমা। পরে জিহাদে যোগ দিতে আফগানিস্তান পাড়ি দেন। সেখানেই তাঁর সঙ্গে এক ইসলামিক স্টেট জঙ্গির বিবাহ হয়। পরে এক লড়াইয়ে তাঁর স্বামীর মৃত্যু হয় এবং ফাতিমা ধরা পড়েন আফগান সেনার হাতে। তাঁর ঠাঁই হয় কাবুলের জেলে।

কিন্তু তারপরেও মেয়েকে দেশে ফেরাতে তৎপর ফাতিমার মা। ভারত সরকারের কাছে একাধিকবার আবেদন জানানো হয়েছে তাঁর তরফে। কিন্তু কেন্দ্র সরকার সাফ জানিয়ে দিয়েছিল যে ইসলামিক স্টেট জঙ্গিদের দেশে ফেরালে দেশের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা বিপদের মুখে পড়তে পারে। কিন্তু তাতেও দমেননি ফাতিমার পরিবার।

কিন্তু আফগানিস্তানে তালিবানের আগ্রাসনের খবরে কাবুলের জেলে বন্দি মেয়েকে ফেরাতে ফের তৎপর হয়ে ওঠেন ফাতিমার মা বিন্দু। কিন্তু ভারত সরকারের তরফে কোনও সাড়া পাওয়া যায়নি। কিন্তু কাবুলের জেল ভেঙে বন্দীদের মুক্তি দেওয়ার খবরে নতুন করে আশার আলো দেখছে ফাতিমার পরিবার।

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.