শিশু মন্দিরের শিক্ষিকা দ্বারা খ্রিষ্টানে ধর্মান্তরিত ৫ পরিবারকে গঙ্গাজল পান করিয়ে হিন্দু ধর্মে ফিরিয়ে আনলো RSS

0
139

কয়েকদিন আগেই খ্রিস্টান মিশনারিদের প্রলোভনে পড়ে খ্রিস্টান ধর্মে ধর্মান্তরিত হয়েছিল ৫টি হিন্দু পরিবারের ২০ জন সদস্য। ঘটনা জানার পরই তাদেরকে হিন্দু ধর্মে ফিরিয়ে আনলো RSS। গঙ্গাজল পান করিয়ে হিন্দু ধর্মে ফিরিয়ে আনা হলো তাদের। ঘটনা ছত্তিশগড়ের ভিলাইয়ের চরোদা এলাকার দেববলোদা গ্রামের।

নানাভাবে প্রলোভন দিয়েছিল খ্রিস্টান মিশনারীরা

গত ১৮ই জুলাই, রবিবার গ্রামের চার্চে ওই ৫টি হিন্দু পরিবারের ২০জন সদস্যকে খ্রিস্টান ধর্মে ধর্মান্তরিত করা হয়। পুলিশ খবর পাওয়া মাত্রই ওই চার্চে হানা দেয়। আটক করা হয় ৩ মহিলাকে, যারা গ্রামবাসীদের খ্রিস্টান ধর্ম গ্রহণ করার জন্য ব্রেনওয়াশ-এর কাজ করতো। প্রচুর বাইবেল ও অন্যান্য সামগ্রী বাজেয়াপ্ত করে পুলিশ।

ওই তিন মহিলাকে জেরা করে জানা গিয়েছে যে চার্চের প্যাস্টর প্রমোদ লাগাতার তাদেরকে নানারকম প্রলোভন দিচ্ছিলেন। খ্রিস্টান ধর্ম গ্রহণ করলে রোগ থেকে মুক্তি পাবে, করোনা ভাইরাস ছুঁতে পারবে না তাদের, এমন প্রলোভন দেখানো হয়েছিল তাদেরকে। এমনকি খ্রিস্টান ধর্ম গ্রহণ করলে তাঁরা ধনী ও সমৃদ্ধশালী হয়ে উঠবে, এমন বোঝানো হয়েছিল তাদেরকে। আর সেই প্রলোভনে পা দিয়েই খ্রিস্টান ধর্মে ধর্মান্তরিত হয় তাঁরা। আর এই কাজে ওই তিন মহিলা প্যাস্টরের সঙ্গে মিলেই গ্রামবাসীদের সহায়তা করতো।

ওই তিন মহিলা ছিলেন সরস্বতী শিশু মন্দিরের শিক্ষিকা

চার্চ থেকে গ্রেপ্তার হওয়া তিন মহিলাকে দেখেই চমকে গিয়েছেন RSS কার্যকর্তারা। গ্রেপ্তার হওয়া তিন মহিলা পদ্মা মহানন্দা, সঙ্গীতা বাগ এবং রিতু সাহু RSS-এর দ্বারা পরিচালিত সরস্বতী শিশু মন্দিরের শিক্ষিকা। জেরায় জানা গিয়েছে যে টাকার লোভে কয়েকমাস আগেই তাঁরা খ্রিস্টান ধর্মে ধর্মান্তরিত হয়েছিল। তারপর থেকেই গ্রামের বাসিন্দাদের মধ্যে বাইবেল বিতরণ করা এবং খ্রিস্টান ধর্মে ধর্মান্তরিত করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিল।

পুলিশি অভিযান

ঘটনার খবর পেয়ে ওই চার্চে হানা দেয় পুলিশ। পৌঁছে জানা জেলার RSS কার্যকর্তারা। পুলিশকে আসতে দেখে চার্চের পিছনের দরজা দিয়ে পালিয়ে যান প্যাস্টর প্রমোদ। কিন্তু তাঁর গাড়ি নিয়ে যেতে পারেনি সে। সেই গাড়ি থেকেই খ্রিস্টান ধর্ম প্রচারের উদ্দেশ্যে ছাপানো প্রচুর প্রচার পুস্তিকা ও বাইবেল বাজেয়াপ্ত করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার করা হয়েছে ওই তিন মহিলাকেও। পলাতক প্যাস্টর প্রমোদের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ।

এদিকে RSS কার্যকর্তারা পৌঁছে যান ওই ৫টি পরিবারের কাছে। তাঁরা স্বীকার করেন যে নানা প্রলোভনের ফাঁদে পড়ে খ্রিস্টান ধর্মে ধর্মান্তরিত হয়েছিলেন। পুনরায় হিন্দু ধর্মে ফিরে আসার ইচ্ছা প্রকাশ করেন তাঁরা। তারপরেই তাদেরকে গঙ্গাজল পান করিয়ে হিন্দু ধর্মে ফিরিয়ে আনা হয়।

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.