বীরভূম: গ্রামে ঢুকলে খুন করার হুমকি, মুসলিম যুবতীকে বিয়ে করে ঘরছাড়া নলহাটির হিন্দু যুবক

1
89

ভালোবেসে এক মুসলিম যুবতীকে বিয়ে করেছিলেন বীরভূমের নলহাটির হিন্দু যুবক সুজন মাল। কিন্তু বিয়ের পর থেকেই প্রাণ বাঁচাতে দুজনেই গ্রামছাড়া। কারণ ওই ওই যুবতীর পরিবার থেকে লাগাতার দেওয়া হচ্ছে প্রাণে মারার হুমকি, এমনটাই অভিযোগ ওই যুবক-যুবতীর।

সুজন মাল ও রিজিয়া খাতুন একই গ্রামের বাসিন্দা। তাঁরা দুজনেই প্রাপ্তবয়স্ক। তাঁরা একে অপরকে ভালোবাসতেন। গত ২৫শে জুন তাঁরা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। কিন্তু বিয়ের পর থেকে লাগাতার খুনের হুমকি দিচ্ছে রিজিয়ার বাপের বাড়ির লোকজন। পরিস্থিতি এমনই যে গ্রাম ছেড়ে অন্য স্থানে আশ্রয় নিতে হয়েছে তাদের।

রিজিয়া খাতুন বলেন যে আমি নিজের ইচ্ছায় বিয়ে করেছি। বিয়ের পরে হিন্দু ধর্ম গ্রহণ করেছি। ওই তরুণী এও জানান যে, তাঁর বর্তমান নাম রিয়া। আর তা মেনে নিতে পারছে না তাঁর পরিবার।

তাদের অভিযোগ, নিজেদের নিরাপত্তা চেয়ে পুলিশের কাছে চিঠি দিয়েও কোনও সহযোগিতা মেলেনি। তাই মুখ্যমন্ত্রী ও প্রধানমন্ত্রীর কাছে চিঠি লিখে নিরাপত্তা চাইবেন বলে জানান তাঁরা। বর্তমানে সুজনের এক আত্মীয়ের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছেন তাঁরা। দিন কাটছে আশঙ্কায়।

প্রসঙ্গত, ভালোবেসে ভিন ধর্মে বিয়ে করার ঘটনা আকছার ঘটে। প্রায়শঃই শোনা যায় যে মুসলিম যুবক ভালোবেসে হিন্দু যুবতীকে বিয়ে করেছেন এবং বিয়ের পরে ওই হিন্দু যুবতী ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন। কিন্তু সেসব ক্ষেত্রে কোনও সমস্যা হয়না। এমনকি প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেওয়ার কোনও অভিযোগও পাওয়া যায়না। কিন্তু বীরভূমের এই ঘটনায় উল্টোটা হওয়ায় বিপত্তি। গ্রাম ছাড়া হওয়ার পাশাপাশি যেভাবে প্রাণে মারার হুমকি দেওয়া হচ্ছে তা যথেষ্ট চিন্তাজনক।

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.

1 COMMENT

Comments are closed.