কলকাতা: তিলজলায় হিন্দুদের ওপর হামলা, মন্দির ভাঙচুর, আক্রান্ত সাংবাদিকও; রাজ্যপাল ও বিজেপি নেতারা তুলে ধরলেন সেই ছবি

0
57

কলকাতার তিলজলায় হিন্দুদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটলো। দোকান ও ঘরবাড়ি ভাঙচুর করার পাশাপাশি একটি কালী মন্দিরে হামলা চালায় মৌলবাদী দুষ্কৃতীরা। আর সেইসব ঘটনার ছবি ও ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে তুলে ধরলেন মাননীয় রাজ্যপাল এবং রাজ্যের বেশ কয়েকজন বিজেপি নেতা।

কলকাতার চৌরঙ্গী কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী শ্রী দেবদত্ত মাজি, যিনি ‛সিংহবাহিনী’ নামে একটি সংগঠনের সভাপতিও বটে, তিনি টুইটারে তিলজলায় হিন্দুদের ওপর হামলার ঘটনা টুইটারে তুলে ধরেছেন। তিনি লিখেছেন যে গত ৮ই জুন তারিখে প্রকাশ্য দিবালোকে তিলজলার শনি কালী মন্দিরে হামলা চালায় একদল ইসলামিক মৌলবাদী। তাঁরা ওই মন্দিরের গেট ভেঙে ফেলার চেষ্টা করে এবং ভিতরে থাকা মূর্তিতেও ভাঙচুর চালায়।

এছাড়াও, Hopeless Bengali Hindu নামে একটি টুইটার হ্যান্ডেল থেকে তিলজলায় হামলার শিকার ওই মন্দিরের একটি ভিডিও পোস্ট করা হয়েছে। সেই ভিডিওতে মন্দিরের ভাঙা গেট এবং ভাঙা মূর্তি এবং মন্দিরের ভিতরের জিনিসপত্র তছনছ করা হয়েছে। Hindu Voice-এর তরফে অবশ্য সেই ভিডিওটির সত্যতা যাচাই করা সম্ভব হয়নি।

পশ্চিমবঙ্গের মাননীয় রাজ্যপাল শ্রী জগদীপ ধনখড় টুইটারে কলকাতার তিলজলায় হিংসার ঘটনা নিয়ে চিন্তা প্রকাশ করেছেন। তিনি রাজ্যের প্রশাসনের সমস্ত রকম ব্যবস্থা নেওয়া উচিত শান্তি বজায় রাখার জন্য। এছাড়াও, তিনি টুইটারে একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন। সেই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে যে একদল উন্মত্ত জনতা গাড়ি ভাঙচুর করেছে। হাতে লাঠি নিয়ে দোকান ভাঙচুর করছে। দোষীদের গ্রেপ্তার করার কথা বলেছেন মাননীয় রাজ্যপাল।

এদিকে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শ্রী শুভেন্দু অধিকারী টুইটারে সাংবাদিকের ওপরে হওয়া হামলার ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন। তিনি লিখেছেন যে তিলজলায় চলতে থাকা হিংসার খবর সংগ্রহ করতে গিয়ে আক্রান্ত হয়েছেন এক সাংবাদিক। তিনি ওই সাংবাদিকের ছবি পোস্ট করে লিখেছেন যে “এইভাবেই বারবার গণতন্ত্রকে হত্যা করে চলেছে তৃণমূল সরকার”।

তবে শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, অশান্ত এলাকায় বিশাল পুলিশবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। দুষ্কৃতীদের ধরতে চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.