বীরভূম: কারওর দেখা নেই! বুক চিতিয়ে আক্রান্ত কর্মীদের পাশে দুধকুমার মন্ডল

0
72

রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা হওয়ার পরই রাজ্যজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে ভয়াবহ হিংসা। তবে এটা উল্লেখযোগ্য যে রাজনৈতিক হিংসা ধীরে ধীরে হিন্দু বিরোধী হিংসার রূপ নেয়। রাজনৈতিক পরিচয় না দেখে বেছে বেছে শুধু হিন্দুদের বাড়িঘর ভাঙচুর চালানো হয়েছে, লুটপাট করা হয়েছে। বেশিরভাগ বিজেপি নেতা, যারা বিধানসভা নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছিলেন, তাঁরা এই বিপদের দিনে কর্মীদের পাশে থাকেননি। দেখা পাওয়া যাচ্ছে না জেলা সভাপতিদের। কিন্তু বেশ কয়েকজন নেতা যারা বিপদের দিনে কর্মীদের পাশে থেকেছেন, তাদের মধ্যে অন্যতম দুধকুমার মন্ডল।

যদিও এবারের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি প্রার্থী করেনি তাকে। তারপরেও বিপদে কর্মীদের পাশে রয়েছেন তিনি। তবে, অনেক বিজেপি প্রার্থী ভোট পরবর্তী হিংসার সময় আক্রান্ত কর্মীদের বাঁচাতে মাঠে নামেননি, এমনটাই অভিযোগ। সেক্ষেত্রে ব্যতিক্রম দুধকুমার মন্ডল। হিংসা শুরু হওয়ার পরই বীরভূম জেলার একাধিক ব্লকের কর্মীদেরকে ফোন করে ভালোমন্দ খবর নিয়েছেন, এমনটাই জানাচ্ছেন অনেকেই।

শুধু ময়ূরেস্বর নয়, সিউড়ি, বোলপুর একাধিক এলাকার অত্যাচারিত ও ঘরছাড়া কর্মীদের জন্য নিরাপদ আশ্রয়ের ব্যবস্থা করছেন। আক্রান্ত কর্মীদের নিরাপত্তার জন্য প্রতি নিয়ত পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন। তাঁর সীমিত সামর্থ্যের মধ্যেই ঘরছাড়া কর্মীদের জন্য থাকা-খাওয়ার ব্যাবস্থা করছেন। ঘরছাড়া কর্মীদের ফেরাতে পুলিশের উচ্চপদস্থ কর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন নিয়মিত। কর্মী-সমর্থক আক্রান্ত হওয়ার খবর পেলেই ছুটে যাচ্ছেন, লড়াই করে টিকে থাকার সাহস জোগাচ্ছেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক পুরোনো বিজেপি কর্মী আমাদের জানিয়েছেন যে, দুধকুমার মন্ডল একমাত্র বাঘের বাচ্চা। দাদার মতোই নেতা চাই।

সেইসঙ্গে মার খাওয়া বিজেপি কর্মীদের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। ক্ষোভ মূলত জেলা নেতৃত্ব ও রাজ্য নেতৃত্বের চাপিয়ে দেওয়া প্রার্থীদের বিরুদ্ধে। কারণ ভোট মিটতেই পালিয়ে গিয়েছেন তাঁরা, এমনটাই অভিযোগ তাদের। অথচ বিপদে-আপদে পাশে থাকা ঘরের ছেলে সাহসী দুধকুমার মন্ডলকে প্রার্থী করা হলো না। অথচ কর্মীদের বিপদে পাশে রয়েছেন তিনি। ফলে আগামী দিনে বীরভূমের বুকে বিজেপির কর্মী সমর্থকদের ক্ষোভ চাপা দিতে যথেষ্ট বেগ পেতে হবে রাজ্য নেতৃত্বকে, তা স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে।

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.