এখনও গ্রেপ্তার হয়নি আনন্দ বর্মণের খুনিরা

0
386

FIR করার পর কেটে গিয়েছে ৪৮ ঘন্টারও বেশি। কিন্তু এখনও গ্রেপ্তার করা হয়নি রাজবংশী যুবক আনন্দ বর্মণের খুনিদের। ফলে শিতলকুচিতে আকাশে-বাতাসে একটি কথা ভেসে বেড়াচ্ছে- আদৌ আনন্দের খুনিরা গ্রেপ্তার হবে তো? নাকি ভোট মিটলেই সবাই ভুলে যাবে?

শিতলকুচি বিধানসভার অন্তর্গত পাঠানটুলির ২৮৫ নম্বর বুথে ভোট দিতে গিয়ে তৃণমূল আশ্রিত মুসলিম দুষ্কৃতীদের দ্বারা খুন হন আনন্দ বর্মণ। ওইদিন তাঁর সঙ্গে তাঁর কাকাতো ভাই জীবনও ভোট দিতে গিয়েছিল। নিজের চোখের সামনে আনন্দকে খুন হতে দেখেছে জীবন। জীবনের কথায়, স্থানীয় মুসলিম দুষ্কৃতী করিম ও সেলিমের লোকেরাই আনন্দকে লক্ষ্য করে গুলি করে। সে মাটিতে পড়ে গেলে তাকে লক্ষ্য করে ফের বোমা ছোঁড়া হয়। সেখানেই আনন্দের মৃত্যু হয়।

ঘটনার পর আনন্দের বাবা শিতলকুচি থানায় করিম, সেলিম এবং তাঁর দলবলের অনেকের নাম উল্লেখ করে FIR দায়ের করেন আনন্দের পিতা জগদীশ বর্মণ। কিন্তু ৪৮ ঘন্টা কেটে গেলেও এখনও কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। পাশপাশি, মাথাভাঙ্গা-১ ব্লকের জোড়পাটকিতে মৃত ৪ জন মুসলিম ব্যক্তির পরিবারের সঙ্গে মমতা ব্যানার্জি ভিডিও কলে কথা বললেও আনন্দের পরিবারের সঙ্গে কথা বলেননি। ফলত, এই ঘটনায় পুরো উত্তরবঙ্গের রাজবংশী সম্প্রদায়ের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভ বিরাজ করছে। যার প্রভাব আগামী দফার নির্বাচনে উত্তরবঙ্গের অন্যান্য আসনগুলিতে ভুগতে হতে পারে তৃণমূলকে, এমনটাই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.