মসজিদের মাইকে ঘোষণা করে লোক জড়ো করা হয়েছিল! অশ্বিনী কুমার খুনে সামনে এলো নয়া তথ্য

0
4410

গত ১০ই এপ্রিল, শনিবার বিহারের কিষানগঞ্জ থানার SHO মোটর বাইক চুরির কেসের অভিযুক্তকে ধরতে গিয়ে উন্মত্ত মুসলিম জনতার হাতে খুন হন। সেই ঘটনার তদন্তে নতুন তথ্য সামনে এলো। মূল অভিযুক্ত মহম্মদ ইসরাইল স্থানীয় মসজিদের মাইক ব্যবহার করে স্থানীয় বাসিন্দাদের জড়ো করেছিলেন, সামনে এলো এমনই তথ্য।

ওইদিন ভোর সাড়ে তিনটা নাগাদ অশ্বিনী কুমার যখন ওই এলাকার মহম্মদ ইসরাইলকে ধরতে পন্তপাড়া এলাকায় পৌঁছান, তখনই মূল অভিযুক্ত মসজিদের মাইক ব্যবহার করে জনতাকে উস্কানি দেয়। মাইকে বলা হয় যে গাড়িতে আসা লোকদের যেন আটকানো হয়। মাইকে সেই বক্তব্য শুনে বাইরে বেরিয়ে আসেন স্থানীয়রা। তাঁরা অশ্বিনী কুমারকে ধরে বেধড়ক পেটাতে থাকেন। পরে ঘটনার খবর পেয়ে পাঞ্জিপাড়া থানা থেকে বিশাল পুলিশবাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছে বিহারের ওই পুলিশ অফিসারকে উদ্ধার করে ইসলামপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। কিন্তু চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঘটনায় ইতিমধ্যে ফিরোজ আলম, আবুজার আলম এবং শাহিনুর খানকে গ্রেপ্তার করেছে। কিন্তু মূল অভিযুক্ত মহম্মদ ইসরাইল এবং তাঁর ছেলে ঘটনার পর পালিয়ে গেলেও পরে রবিবার তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। পুলিশের সূত্র জানাচ্ছে যে ওই দুজন বাইক চুরির চক্রের পান্ডা।

এদিকে ঘটনার বিরুদ্ধে সরব হয়েছে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ(VHP)। VHP নেতা মিলিন্দ পরান্ডার অভিযোগ, ওই এলাকা জিহাদিদের স্বর্গরাজ্যে পরিণত হয়েছে। এমনকি বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী ওই এলাকা পাচার ও বাংলাদেশি মুসলিম অনুপ্রবেশকারীদের মুক্তাঞ্চলে পরিণত হয়েছে। গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছে তাঁরা।

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.