গত ৭০ বছরে পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশ থেকে হারিয়ে গিয়েছে প্রায় ২ কোটি হিন্দু!

0
787

© বল্লাল সেন

সোয়া দু কোটিরও বেশি হিন্দু ও অন্যান্য ধর্মীয় গোষ্ঠী হারিয়ে গেছে পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশ থেকে গত 70 বছরে। চমকে উঠবেন না এটাই সত্যি , অবিভক্ত বঙ্গ , বিহার ,অসমের1931ও 1941সালের সেন্সাস ঘেটে এবং 2011সালের পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশ এর সেন্সাস তুলনা করে হিসাব করে এটা বার করেছি । ইংরেজ আমলে অবিভক্ত বাংলার মধ্যে ছিল না সিলেট ,উত্তর দিনাজপুর এর ইসলামপুর মহকুমা ও পুরুলিয়া । এছাড়া কুচবিহার দেশীয় রাজ্য ছিল । সিলেট ছিল অসমের অন্তর্ভুক্ত, ইসলামপুর ছিল বিহারের পুর্নিয়া জেলার কিষাণগঞ্জ মহকুমার অন্তর্গত ও পুরুলিয়া ছিল বিহারের মানভূম জেলাতে।

বাঙলা , বিহার, অসমের সেন্সাস ঘেটে যা হিসাব আসছে 1941 সালে আজকের বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যা ছিল 4,19,41,972 জন, যার মধ্যে মুসলমান ছিল 2,94,55,781জন যা সে সময়ের জনসংখ্যার 70.23%। হিন্দু ও অন্যান্যরা ছিল 1,24,86,191 জন যা 1941 এর জনসংখ্যার 29.77% । পশ্চিমবঙ্গে জনসংখ্যা ছিল সে সময়ে ( ফরাসি অধিকৃত চন্দনগর শহর বাদে ) 2,31,93, 50,909জন যার মধ্যে মুসলমান ছিল 57,73,726 জন ও অ মুসলমান ছিল 1,74,19,783 জন যা যথাক্রমে জনসংখ্যার 24.89% ও 75.11% ।

1931 সালে বাংলাদেশে জনসংখ্যা ছিল 3,53,40,948 জন যার মধ্যে মুসলমান 2,45,12, 154 জন ও হিন্দু ও অন্যান্যরা 1,08,28,794 জন যা জনসংখ্যার 69.36% ও 30.64% । 1931 সালে চন্দনগর বাদে পশ্চিমবঙ্গে জনসংখ্যা ছিল 1,89,07,476জন যার মধ্যে মুসলমান ছিল 47,44,549 জন ও হিন্দু ছিল 1,41,62,927 জন যা জনসংখ্যার 25.09% ও 74.91 % ।

এবার আসি 2011 সালের প্র্সঙ্গে । 2011সালে চন্দননগর বাদে পশ্চিমবঙ্গের জনসংখ্যা 9,11,09, 248 জন, যার মধ্যে মুসলমান 2,46,43,450 জন ও হিন্দু ও অন্যরা 6,64,65,798 জন যা জনসংখ্যার 27.05% ও 72.95% । বাঙলাদেশের 2011সালে জনসংখ্যা ছিল 14,38,36,820 জন যার মধ্যে 12,99,44,792 জন মুসলমান ও 1,38,92,028জন অ মুসলমান যা জনসংখ্যার 90.34% ও 9.66% ।

গত 70 বছরে পশ্চিমবঙ্গে মুসলমান বেড়েছে 326.82 % ও অমুসলমান বেড়েছে 281.55% অর্থাৎ 3.27গুণ ও 2.82গুণ । বাংলাদেশে মুসলমান বেড়েছে 341.15% ,হিন্দু ও অন্যরা 11.26% । বাংলাদেশে মুসলমানরা 30 গুণ বেশি হারে বেড়েছে হিন্দুদের থেকে, পশ্চিমবঙ্গে 1.16 গুণ গত 70বছরে । বাংলাদেশ থেকে দলে দলে হিন্দু শরণার্থী এই বাংলায় আসার পরেও অবৈধ অনুপ্রবেশ ও অতি উচ্চ জন্মহার-এর কারনে পশ্চিম বাংলায় মুসলমান এর শতাংশ বেড়েছে ও প্রাক স্বাধীনতা যুগকে অতিক্রম করেছে।

এবার আসি আসল হিসাবে। 1931-1941সালে পশ্চিমবঙ্গে মুসলমান বেড়েছে 21.69%, হিন্দু ও অন্যরা বেড়েছে 23%। বাংলাদেশে একই সময়ে মুসলমান বেড়েছে 20.17%, হিন্দু ও অন্যরা 15.31%। এই বৃদ্ধির হার বজায় থাকলে পশ্চিমবঙ্গে 2011 সালে হিন্দু ও অন্যরা থাকা উচিৎ 7,41,95,663 জন ও মুসলমান জনসংখ্যা হওয়া উচিৎ 2,28,16,047 জন। সব মিলিয়ে 9,70,11,710 জন যার মধ্যে মুসলমান 23.52%, হিন্দু ও অন্যরা 76.48% ।

একই ভাবে বাংলাদেশে জনসংখ্যা হওয়া উচিৎ হিন্দু ও অন্যদের 3,38,45,332জন ও মুসলমান দের 10,65,96,502 জন মোট 14,04,41,834 জন যার মধ্যে মুসলমান 75.9% , হিন্দু ও অন্যরা 24.1% ।কিন্তু 2011সালে পশ্চিমবঙ্গে(চন্দন নগর বাদে ) হিন্দু ও অন্যরা আছে 6,64,75,798 জন ও মুসলমান আছে 2,46,43,450জন সর্ব মোট 9,11,09,248 জন। বাঙলাদেশে হিন্দু ও অন্যরা আছে 1,38,92,028জন ও মুসলমান আছে 12,99,44,792 জন মোট 14,38,36,820 জন ।

পশ্চিমবঙ্গের মোট জনসংখ্যা যা হওয়া উচিৎ ছিল তার থেকে 59,02,462বা 6.08% জন কম 2011সালে অন্যদিকে বাংলাদেশে এটা 33, 94,986জন বা 2.42% বেশি । অর্থাৎ পশ্চিমবঙ্গের আসল জনসংখ্যা যা হওয়া উচিৎ ছিল তার 93.92%, বাংলাদেশের 102.42% । পশ্চিমবঙ্গে যা জনসংখ্যা হত তার 23.52% হত মুসলমান, আসল জনসংখ্যা সেই জনসংখ্যার 93.92%, মুসলমান সংখ্যাও 23.52*93.92/100=22.09% হওয়া উচিৎ আসল জনসংখ্যার ।

বাংলাদেশের যা জনসংখ্যা হত তার 75.9% হত মুসলমান। আসল জনসংখ্যা সেই জনসংখ্যার 102.42%, সে হিসাবে মুসলমান হওয়া উচিৎ 102.42*75.9 =77.74% আসল জনসংখ্যার । এই হিসাব করলে পশ্চিমবঙ্গের মোট জনসংখ্যা হওয়া উচিৎ হিন্দু ও অন্য দের 7,09,83,215 জন ও মুসলমান দের 2,01,26,033জন । বাংলাদেশ এর মোট জনসংখ্যা হওয়া উচিৎ মুসলমান দের 11,18,18,744জন ও হিন্দু ও বাকি দের 3,20,18,076 জন ।

মোট দুই বাঙলা মিলিয়ে মুসলমান থাকা উচিৎ 13,19,44,777জন ও হিন্দু ও অন্যরা থাকা উচিৎ 10,30,00,129জন যা আজকের উভয় বঙ্গের 2011সালের মিলিত জনসংখ্যার 56.16% ও 43.84% । কিন্তু দুই বংগ মিলিয়ে মুসলমান আছে 15,45,88,242 জন ও অ মুসলমান আছে 8,03,57,826 জন যা মিলিত জনসংখ্যার 65.8% ও 34.2% । মোট 2,26, 43,465 জন মুসলমান বেশি আছে যা থাকার কথা তার চেয়ে ও হিন্দু ও অন্যরা একি সংখ্যক কম আছে যা থাকার কথা তার চেয়ে দুই বংগ মিলিয়ে ।

মুসলমান রা তাদের যা থাকা উচিৎ তার থেকে 17.16% বেশি আছে অন্যদিকে হিন্দু ও অন্যরা 21.98% কম । এর মধ্যে পশ্চিমবঙ্গে মুসলমান বেশি ও হিন্দুরা কম আছে 45,17,417 জন ও বাংলাদেশে 1,81,26,048 জন । পশ্চিমবঙ্গে হিন্দু ও অন্যরা কম আছে 6.36%, মুসলমান রা বেশি আছে 22.45% ।বাংলাদেশে এটা হিন্দু ও অন্য 56.61% কম , মুসলমান 16.21% বেশি ।

2.26 কোটি মানুষ হারিয়ে গেছে যার অধিকাংশই হিন্দু ,কিছু বৌদ্ধ ও বিভিন্ন উপজাতি ও অল্প সংখ্যক ক্রিশ্চান । এই মানুষ গুলোর হারানোর কারন অনেক বাংলাদেশে মুলত একের পর এক হিন্দু গণহত্যা , 1947-71সালে বেশ কয়েক লাখ মানুষ মারা যায় নোয়াখালি,ঢাকা , খুলনা , নবাব গঞ্জ ,বরিশাল ,সিলেট এর বড় বড় গণহত্যা তে যার সঠিক হিসাব নেই তবে 10 লাখের কম হবে না আন্দাজ করা যায় । মুক্তিযুদ্ধের সময় প্রায় 30 লাখ বাঙালি হিন্দু খুন হয়েছিল ।

এই 40 লাখ মানুষ বেচে থাকলে অন্তত দেড় কোটি হিন্দু ,বৌদ্ধ ও অন্য উপজাতির লোক থাকত আজকের দিনে । পশ্চিমবঙ্গে অস্বাভাবিক এক সন্তান নীতি , অতি আধুনিক জীবনযাত্রা , দেরিতে বিয়ে,অস্বাস্থ্যকর জীবনযাপন ও ডিভোর্স বৃদ্ধির ফলে জন্মহার কমে গিয়ে 45লাখ হিন্দু , জৈন ,ক্রিশ্চান ও উপজাতি কমে গেছে । বাকি 31 লাখ হিন্দুর এক দুই লাখ মত কমেছে 1971-2011অবধি হিন্দু ,বৌদ্ধ হত্যা ও বিতাড়ন এর কারনে আর বাকি 30 লাখ মত মূলত বাংলাদেশে হিন্দুদের জন্মহার 2-2.5এ নেমে আসায় ও মুসলমান রা অতি উচ্চ জন্মহার ধরে রাখায় ।

একদিকে পরিকল্পিত গণহত্যা অন্যদিকে অতি আধুনিকতা ও বামপন্থা প্রয়োগ করে জন্মহার কমিয়ে ধীরে ধীরে হিন্দুদের বিলুপ্তির দিকে ঠেলে দিচ্ছে বিধর্মীরা । বর্তমানে হিন্দুদের মধ্যে যে পরিমাণ অতি আধুনিকতা ঢুকে গেছে, বিয়ে কমচে , জন্মহার তলানিতে তাতে আগামি দিনে আরও তিন চার কোটি হিন্দু হারিয়ে যাবে আর 50 বছরের মধ্যেই স্রেফ কম জন্মহার , অতি আধুনিকতা ও এক সন্তান নীতির কারনেই ।

এই লেখার সোর্স হল অবিভক্ত বংগ,বিহার ,অসমের 1931ও 1941সেন্সাস , 2011সালের ভারতের সেন্সাস ( পশ্চিমবঙ্গ ) ও 2011সালের জেলা অনুসারে বাংলাদেশের সেন্সাস তার মধ্যে কয়েকটি দিচ্ছি।https://www.google.com/url?sa=t&source=web&rct=j&url=https://dspace.gipe.ac.in/xmlui/handle/10973/37365&ved=2ahUKEwj7-_agmefvAhUkzjgGHcFdCJwQFjAAegQIAxAC&usg=AOvVaw1v_4pdRtx8iM0k8o_zp-VU
এটি 1941সালের অবিভক্ত বঙ্গের সেন্সাসের লিঙ্ক।
এটি 2011সালের সেন্সাস ইন্ডিয়া https://censusindia.gov.in/2011-common/cen সাইটের লিঙ্ক ।
এটি বাংলাদেশের বগুরা জেলার সেন্সাস এর জেলাগত পরিসংখ্যান এরকম 64 জেলার আলাদা আলাদা তথ্য আছে । https://web.archive.org/web/20140723141818/http://www.bbs.gov.bd/WebTestApplication/userfiles/Image/District%20Statistics/Bo

এই তথ্যগুলি বিশ্লেষন করে হিসাব করেই ভয়ানক ভাবে বঙ্গে হিন্দু ক্ষয়ের ব্যাপারে উপনীত হয়েছি।।

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.