ইসলাম গ্রহণ ও ২ কন্যাকে খৎনা করাতে রাজি না হওয়ায় হিন্দু তরুণীকে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা, FIR দায়ের

0
2001

লাভ জিহাদের একটি ভয়াবহ ঘটনার খবর এলো উত্তর প্রদেশের ঠাকুরগঞ্জ থেকে। প্রথমে হিন্দু নাম ও পরিচয়ে হিন্দু তরুণীকে বিয়ে এবং পরে লাগাতার ইসলাম ধর্ম গ্রহণের জন্য অত্যাচার। শুধু তাই নয়, ২ কন্যার খৎনা করানোর জন্য লাগাতার অত্যাচার। কিন্তু ওই তরুণী রাজি না হওয়ায় আগুনে পুড়িয়ে মারার  চেষ্টা। শেষমেষ পুলিশের চেষ্টায় প্রাণে বেঁচে গেলেন ওই তরুণী। ঘটনা উত্তর প্রদেশের লখনৌ এলাকার ঠাকুরগঞ্জের। 

হিন্দু তরুণীর অভিযোগ, ২০০৯ সালের ১৩ই ফেব্রুয়ারি রাজীব নামে এক হিন্দু যুবকের সঙ্গে তাঁর বিয়ে হয়। তাঁরা স্থানীয় আর্য্য সমাজের মন্দিরে গিয়ে বিয়ে করেন। প্রেম করার সময় রাজীব নিজেকে হিন্দু হিসেবে পরিচয় দিয়েছিল এবং সে এটাও বলেছিল যে সে অনাথ। কিন্তু বিয়ের কয়েক বছর পরে ওই তরুণী জানতে পারে যে তাঁর স্বামী আদতে মুসলিম এবং মিথ্যা পরিচয়ে বিয়ে করেছিল তাকে। তাঁর আসল নাম মহম্মদ আফজল সিদ্দিকী। তারপরেই ওই হিন্দু তরুণীকে ইসলাম ধর্ম গ্রহণের জন্য লাগাতার অত্যাচার করতে থাকে। 

কিন্তু ইসলাম ধর্ম গ্রহন করতে রাজি হননি ওই হিন্দু তরুণী। তারপরে আফজল তাঁর ২ কন্যার খৎনা করানোর জন্য চাপ দিতে থাকে। কিন্তু তাতেও রাজি হননি ওই তরুণী। তারপরেই গতকাল ১৮ই মার্চ ওই তরুণী ও তাঁর ২ কন্যা সন্তানকে ঘরে বন্ধ করে বাইরে থেকে তালা লাগিয়ে দেয় আফজল। তারপর বাইরে থেকে আগুন লাগিয়ে দিয়ে পালিয়ে যায় আফজল। ওই তরুণী ১১২ নম্বরে ফোন করে পুলিশকে জানান। স্থানীয় বাসিন্দারা এবং দমকলের চেষ্টায় আগুন নিভিয়ে উদ্ধার করা হয় ওই তরুণীকে। পরে ওই তরুণী ঠাকুরগঞ্জ থানায় FIR দায়ের করেন। অভিযুক্ত মহম্মদ আফজল সিদ্দিকীকে খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। 

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.