পাকিস্তান: আহমেদিয়া মুসলমানদের মসজিদে ভাঙচুর চালালো সুন্নি মুসলমানরা

0
433

ধর্মীয় সংখ্যালঘু হিন্দু সম্প্রদায়ের পর এবার পাকিস্তানে টার্গেট করা হচ্ছে আহমেদিয়া মুসলমানদের। মৌলবাদী সুন্নি মুসলমানরা হামলা চালালো আহমেদিয়া সম্প্রদায়ের মসজিদের ওপর। পুলিশের সামনেই হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করা হলো মসজিদের ওপরে থাকা গম্বুজে। ঘটনা পাকিস্তানের গুজরানওয়ালা জেলার গারমলা ভিরকান গ্রামের। গতকাল বুধবার এই ঘটনা ঘটে।

ইতিমিধ্যে ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে টুইটারে ভাইরাল। ভিডিও পোস্ট করে এক ব্যক্তি লিখেছেন যে যেভাবে পুলিশের উপস্থিতিতে আহমেদিয়া মুসলমানদের মসজিদে ভাঙচুর চালানো হলো, তাতে পাকিস্তানের মাটিতে আর টিকে থাকার কোনো আশা নেই।

জানা গিয়েছে, ওইদিন পুলিশের উপস্থিতিতে একদল উন্মত্ত সুন্নি মুসলমান ওই মসজিদে হামলা চালায়। তাঁরা মসজিদের উপরে উঠে পড়ে এবং মসজিদের উপরে থাকা গম্বুজ ভেঙে নিচে ফেলে দেয়। এমনকি মসজিদের দেওয়ালে লেখা কলেমা-ই-তাওবা তুলে ফেলা হয়। পুলিশ দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে দেখতে থাকে পুরো ঘটনা। উন্মত্ত সুন্নি মুসলমানদের আটকাতে কোনও পদক্ষেপই নেয়নি পুলিশ।

প্রসঙ্গত, পাকিস্তানের সংবিধান অনুসারে আহমেদিয়া গোষ্ঠীরা মুসলমান হিসেবে গ্রাহ্য নয়। এমনকি মসজিদে গম্বুজ ও মিনার লাগানোরও অধিকার নেই আহমেদিয়া মুসলমানদের। এছাড়াও, আহমেদিয়া মুসলমানদের মসজিদের দেওয়ালে কলেমা-ই-তাওবা লেখারও অধিকার নেই। আর এই কারণেই আহমেদিয়া মুসলমানদের ধর্মীয় অধিকার বলে কিছু নেই পাকিস্তানে। প্রায়ই আহমেদিয়া মুসলমানদের পুড়িয়ে হত্যা করার ঘটনা ঘটে। এমনকি মৃত্যুর পরে ইসলামিক রীতি অনুযায়ী কবর দেওয়ার ক্ষেত্রে বাধা দেওয়া হয় আহমেদিয়া মুসলমানদের।

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.