দেবলীনা কাণ্ডে নিষ্ক্রিয় পুলিশ, কোর্টে যাওয়ার হুমকি বিজেপি নেতার

0
426

লাইভ টিভি অনুষ্ঠানে বাংলা ধারাবাহিকের জনপ্রিয় অভিনেত্রী দেবলীনা দত্ত-এর অষ্টমীর দিন গরুর মাংস খাওয়ার বক্তব্য নিয়ে বিতর্ক কম হয়নি। সেসময় তাঁর এই মন্তব্যে সারা রাজ্যজুড়ে প্রতিবাদের ঝড় উঠেছিল। অনেকে গ্রেপ্তারের দাবিও তুলেছিলেন। এমনকি বিজেপি নেতা তথা আইনজীবী তরুণজ্যোতি তিওয়ারি থানায় FIR দায়েরও করেছিলেন। কিন্তু তারপরও কোনো ব্যবস্থা নেয়নি পুলিশ। তাই কোর্টে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানিয়েছেন ওই বিজেপি নেতা।

আজ ফেসবুক পোস্টে তরুণজ্যোতি লেখেন যে, পশ্চিমবঙ্গের পুলিশ মাননীয়া অর্থাৎ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কথায় চলে। তাই FIR দায়ের হলেও কোনো ব্যবস্থা নেয়নি পুলিশ। সেইসঙ্গে তাঁর অভিযোগ, বাকস্বাধীনতার নামে বার বার হিন্দু ধর্মকে আক্রমণ করা হচ্ছে, হিন্দু ধর্ম সম্বন্ধে নোংরা কথা বলা হচ্ছে। এমনকি হিন্দুর ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত দেওয়া হলেও ব্যবস্থা নিচ্ছে না পুলিশ।

তিনি ফেসবুক পোস্টে লেখেন,

পশ্চিমবঙ্গ সরকার এবং পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ প্রশাসন হিন্দু বিরোধী।

এই জন্য হিন্দু ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করলেও কোনো পদক্ষেপ নেয় না। তার সুযোগ নেয় কিছু স্বঘোষীত বুদ্ধিজীবী। দুর্গা অষ্টমীর দিন beef খাওয়াকে প্রমোট করা হয়ে যায় বাক স্বাধীনতা।

একটা কথা পরিস্কার বলে দিতে চাই, পশ্চিমবঙ্গের পুলিশ মাননীয়ার কথায় চলতে পারে কিন্তু কোর্ট চলে আইনের শাসন অনুযায়ী।

আইনি পথে ব্যবস্থা হবেই। ধর্মকে রক্ষা করলে ধর্ম আমাকে রক্ষা করবে। এইসব বুদ্ধিজীবীদের আমার ধর্মের ওপর বারবার আঘাত মেনে নেওয়া যায় না। আমি আইনে বিশ্বাসী।

প্রসঙ্গত, লাইভ টিভি অনুষ্ঠানে অন্যের ধর্মীয় অনুভূতিতে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে আঘাত করার পর থেকেই বিভিন্ন মহল থেকে সমর্থন পেয়েছেন দেবলীনা দত্ত। ফলত, রাজ্যজুড়ে ধর্মপ্রাণ হিন্দুরা পুলিশ ও প্রশাসনের এমন ভূমিকায় যথেষ্ট ক্ষুব্ধ। তাঁর ফলস্বরূপ নেটিজেনরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজেদের ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন। ফলত, এর প্রভাব যদি আগামী বিধানসভা নির্বাচনে ভোটের বোতামে পড়ে, তাহলে ভুগতে হতে পারে তৃণমূলকে, এমনটাই মত রাজনৈতিক মহলের।

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.