জন জাগরণ অভিযান ঘিরে সাম্প্রদায়িক সংঘর্ষ মধ্য প্রদেশে

0
568

অযোধ্যায় শ্রী রাম মন্দিরের জন্য অর্থ সংগ্রহের উদ্দেশ্যে হিন্দুদের ‛জন জাগরণ অভিযান’ ঘিরে উত্তপ্ত মধ্য প্রদেশের একাধিক জেলা। ইন্দোর, উজ্জয়িনী ও মন্ডসৌর জেলায় দফায় দফায় সাম্প্রদায়িক সংঘর্ষ হয়। ঘটনার সূত্রপাত উজ্জয়িনী শহরে হওয়া মুসলিমদের হামলা থেকে। এখনও পর্যন্ত যা খবর, তিনটি জেলায় হিন্দু-মুসলিম সংঘর্ষে বহু ঘরবাড়ি পোড়ানো হয়েছে।

জানা গিয়েছে, গত ২৫ তারিখে শ্রী রাম মন্দিরের নির্মাণের জন্য অর্থ সংগ্রহের উদ্দেশ্যে একটি বাইক মিছিল বের করা হয়েছিল উজ্জয়িনী শহরে। সেই মিছিল যখন মুসলিম প্রধান বেগম বাগ অঞ্চল দিয়ে যাচ্ছিল, তখন মিছিল লক্ষ্য করে ব্যাপক পাথর ছোঁড়া হয়। তাতে মিছিলের অনেকেই আহত হন। এই ঘটনায় ক্ষুব্ধ হিন্দুরা পাল্টা হামলা চালায়। বেশ কয়েকটি মুসলিম ঘরবাড়িতে ভাঙচুর চালানো হয়।

দ্বিতীয় ঘটনাটি সামনে এসেছে ইন্দোরের দেপালপুর পঞ্চায়েতের চন্দনখেরী গ্রাম থেকে। সেখানকার স্থানীয় মুসলিমদের অভিযোগ, কয়েকশ মানুষ তাদের গ্রামে হামলা চালিয়ে গ্রামের ঈদগাহ মসজিদের মিনারে ভাঙচুর চালিয়েছে। পাশাপাশি, তাদের অভিযোগ, কয়েকটি বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে ঘটনার বেশ কয়েকটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। তবে প্রশাসনের তরফে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করা হয়নি।

তৃতীয় ঘটনা ঘটে মন্ডসৌর এলাকায়। কয়েকদিন আগেই হিন্দুদের জন জাগরণ অভিযানের মিছিল মুসলিম অধ্যুষিত দোরানা এলাকা দিয়ে যাওয়ার সময় আটকে দেওয়া হয়। এমনকি মিছিলের ওপর পাথর ছোঁড়া হয়েছিল বলেও অভিযোগ। তারপরেই ক্ষুব্ধ হিন্দুরা পরেরদিন আর একটি মিছিল বের করে। আগের হামলার ক্ষোভ গিয়ে আছড়ে পড়ে। অভিযোগ, ক্ষুব্ধ হিন্দুরা একাধিক বাড়িতে হামলা চালায়। বহু ঘরবাড়ীতে লুটপাট চালানো হয়েছে বলে অভিযোগ মুসলিম বাসিন্দাদের।

ইতিমধ্যে ঘটনায় একাধিক অভিযোগ ও পাল্টা অভিযোগ দায়ের হয়েছে থানায়। পুলিশ সমস্ত অভিযোগ খতিয়ে দেখছে বলে জানা গিয়েছে। পাশপাশি, সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেক ভিডিও এমনভাবে ছড়ানো হয়েছে, যাতে দেখা যাচ্ছে যে মুসলিমদের ওপর হামলা চালানো হয়েছে, সে বিষয়েও সতর্ক করেছে পুলিশ। পুলিশের আশঙ্কা, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করার চক্রান্ত হিসেবে ওইসব ভিডিও পরিকল্পনা করে ছড়ানো হচ্ছে। আপাতত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.