দিল্লী: রাহুল পরিচয়ে প্রেমের জালে ফাঁসিয়ে হিন্দু মহিলাকে ধর্ষণ, সাহিব আলীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের

0
361

লাভ জিহাদের নতুন একটি ঘটনা সামনে এসেছে। সাহিব আলী নামে এক মুসলিম যুবক নিজের ধর্ম পরিচয় গোপন করে এক হিন্দু মহিলাকে প্রেমের জালে ফাঁসালেন। তারপর তাকে মন্দিরে নিয়ে গিয়ে বিয়েও করলেন। কিন্তু নিজের ধর্ম পরিচয় প্রকাশ হয়ে যাওয়ায় হিন্দু তরুণীকে জোর করে ধর্ষণ ও যৌন নির্যাতন করা হয়। ভুক্তভোগী ওই হিন্দু মহিলা ইতিমধ্যেই সাহিব আলীর বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে। অভিযোগ পাওয়ার পরই তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। ঘটনা দিল্লীর সরিতা বিহার এলাকার।

টাইমস অফ ইন্ডিয়া প্রকাশিত খবর অনুসারে, ২০১৯ সালে রাহুল পরিচয়ে এক যুবক তাদের বাড়িতে ভাড়াটে হিসেবে আসেন। পরে ধীরে ধীরে রাহুল ও ওই হিন্দু মহিলার মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তারপর পরে দুজনে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেন। সেইমত, স্থানীয় একটি মন্দিরে গিয়ে বিয়েও করেন দুজনে। কিন্তু পরে কোনোভাবে রাহুলের আসল পরিচয় জানতে পারেন ওই হিন্দু মহিলা। আর তাকে এ বিষয়ে জিজ্ঞেস করলে সাহিব ওই মহিলাকে মারধর করে। তারপর আটকে রেখে চলতে থাকে লাগাতার ধর্ষণ। মহিলার অভিযোগ, সাহিবের পিতাও ধর্ষণ করেছেন তাকে। তারপরই সেখান থেকে কোনরকমে পালিয়ে এসে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ওই মহিলা। অভিযোগ পাওয়ার পরই নির্দিষ্ট ধারায় মামলা দায়ের করে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.