বাংলাদেশ: চট্টগ্রামের আনোয়ারায় মন্দির ও গীতা বিদ্যালয় ভেঙে রাস্তার নির্মাণ

0
490

আবারও একবার বাংলদেশের সংখ্যালঘু হিন্দুর ধর্মবিশ্বাসের ওপর আঘাত নেমে এলো। এবার উন্নয়নের দোহাই দিয়ে মন্দির ও গীতা স্কুল ভেঙে রাস্তা নির্মান করার ঘটনা ঘটলো। আজ ২৮শে ডিসেম্বর, সোমবার বাংলদেশের চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার জয়কালী হাটের পশ্চিম সর্দারপাড়া এলাকায়। এই ঘটনায় ব্যাপক ক্ষোভ ছড়িয়েছে এলাকায়।

জানা গিয়েছে, স্থানীয় এক হিন্দু মহিলা ১৯৯২ সালে মন্দিরটি প্রতিষ্ঠা করেন। পরবর্তীকালে ওই মহিলার মৃত্যুর পর স্থানীয় হিন্দু বাসিন্দারা মন্দিরটি পরিচালনার ভার নেন। তাঁরা ওই মন্দিরে নিত্য পূজা অর্চনা করার পাশাপাশি মন্দিরের পাশেই একটি গীতা বিদ্যালয় চালু করেন। ওই বিদ্যালয়ে স্থানীয় হিন্দু শিশুরা গীতা অধ্যয়ন করতে আসতেন।

ছবি: ভেঙে ফেলা হয়েছে মন্দির

কিছুদিন আগেই সরকার মন্দিরের পাশ দিয়ে যাওয়া রাস্তার সম্প্রসারণের কাজ শুরু করার জন্য বিজ্ঞপ্তি দেয়। রাস্তার তৈরি করার কাজের বরাত পান জাফর উদ্দিন চৌধুরী। তিনি রাস্তার সম্প্রসারণ করার নামে গীতা বিদ্যালয় এবং মন্দিরটি ভেঙে ফেলেন। তারপর মূর্তিটি একটি গাছতলায় বসিয়ে দেন। তারপর মন্দিরের জমির উপর রাস্তা তৈরি করে দেন। স্থানীয়রা বাধা দিলেও কন্ট্রাক্টর ও তাঁর লোকজনেরা রাস্তার কাজ বন্ধ করেননি। এমন পরিস্থিতিতে মূর্তিটি রাস্তার পাশে একটি গাছতলায় পরে রয়েছে।

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.