উত্তর-পূর্ব ভারতে আতঙ্কবাদের মূলে রয়েছে খ্রিস্টান মিশনারীরা

0
369

© প্রীতম দাস

উত্তর-পূর্ব ভারতে আতঙ্কবাদের মূলে রয়েছে এই খ্রীষ্টান মিশনারীরা। ব্রিটিশের থেকে স্বাধীনতা অর্জন করতে একসময় উত্তর-পূর্ব ভারতের জনজাতি হিন্দুরা অগ্রিম ভূমিকা নিয়েছিল। ব্রিটিশ হোক বা বিদেশি মুসলিম শাসক হোক , উত্তর-পূর্ব ভারতে সব থেকে কম শাসন করতে পেরেছিল।

আজ কেন এই জনজাতিরা (শুধু নব্য খ্রীষ্টানরা) ভারত তথা ভারতীয়দের বিরুদ্ধে লড়ছে ? উত্তর-পূর্বের প্রত্যেকটি প্রদেশেই ভারত বিরোধী এক হিংসাত্মক পরিবেশের সৃষ্টি করেছে খ্রীষ্টান মিশনারীরা । নাগাল্যান্ড, মিজোরাম, মেঘালয়ে হিন্দুরা (শুধু জনজাতি) শূন্যতার দিকে তাই সেখানে আতঙ্কবাদ বেশি। অন্যদিকে অসম , ত্রিপুরা , মণিপুর , অরুণাচল প্রদেশে মোটামুটি হিন্দু থাকার জন্য সেইসব অঞ্চলে আতঙ্কবাদ তুলনামূলকভাবে কম ।

বজরং দলের সমালোচনা করার থেকে বেশি প্রয়োজনীয় এইসব তথ্য । আসুন যুক্তি দিয়ে কথা বলুন , বজরং দল রামকৃষ্ণ মিশনের বিরোধীতা করেনি কিন্তু যেসময় সম্পূর্ণ ভারতে খ্রীষ্টান মিশনারীদের হিংসার শিকার হচ্ছে হিন্দুরা তখন মিশনে খ্রীষ্ট পূজা কেন ? যেসময় খ্রীষ্টান মিশনারীরা হিন্দুদের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ম পরিবর্তন করাচ্ছে তখন আপনাদের এই আওয়াজ চুপ ছিল কেন ? যখন বাংলাদেশে রামকৃষ্ণ মিশন জালিয়ে দেওয়া হয় তখন বজরং দল প্রতিবাদ করে , অপনারা কোথায় থাকেন ?
চার্চে কী স্বামী বিবেকানন্দ বা রামকৃষ্ণ পরমহংসদেবের পূজা হয় ? তাহলে মিশনে কেন হবে ?

অনেকেই খ্রীষ্টান মিশনারীদের দ্বারা পরিচালিত বিদ্যালয়ের প্রসঙ্গ তুলছেন । হ্যাঁ এই বিদ্যালয়গুলিরও বিরোধীতা করি । এই বিদ্যালয়গুলি থেকে বেরিয়ে আশা হিন্দুরা নিজেরই সংস্কৃতি ও ধর্মের বিরুদ্ধে কাজ করে যাচ্ছে। হাতেগোনা কয়েকজন আছে যারা হিন্দুত্বের জন্য কাজ করছে। এই খ্রীষ্টান মিশনারী পরিচালিত বিদ্যালয়গুলিই হিন্দুদের টাকা দিয়ে হিন্দুদের সন্তানকেই মানসিক গোলামে পরিণত করছে ।
সময় থাকতে বদলান , অতীতে যদি কোনো ভূল রাস্তায় ছিলাম তাহলে এখন সেই রাস্তা ত্যাগ করে আসতে হবে।

(মতামত লেখকের ব্যক্তিগত)

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.