ধর্মান্তরিত না করে হিন্দু মেয়েকে বিয়ে ইসলামে বৈধ নয়, জানালো দারুল-উলুম-দেওবন্দ

0
433

হিন্দু মেয়েকে ভালোবেসে বিয়ে করতে চেয়েছিলেন এক মুসলিম যুবক। কিন্তু তাঁর হিন্দু প্রেমিকার শর্ত অনুযায়ী, মুসলিম প্রেমিক চেয়েছিল যে হিন্দু প্রেমিকা বিয়ের আগে বা পরে ইসলামে ধর্মান্তরিত হবে না। আর সেই বিয়ের বিষয়ে দারুল উলুম দেওবন্দের মতামত জানতে চেয়েছিল ওই মুসলিম যুবক। কিন্তু দেওবন্দের ‛দারুল ইফতা’ উত্তরে সাফ জানালো যে এ বিয়ে ইসলাম বিরোধী। পাশাপাশি হিন্দু প্রেমিকাকে ভুলে যাওয়ার পরামর্শও দেওয়া হয়েছে দেওবন্দের তরফে।

ছবি: দেওবন্দের উদ্দেশ্যে মুসলিম যুবকের প্রশ্ন

দারুল উলুম দেওবন্দ মুসলিম সমাজের নানা বিষয়ে সময়ে সময়ে ফতোয়া জারি করে থাকে। ইদানিং গয়না প্রস্তুতকারক সংস্থা ‛তানিষ্ক’ তাদের বিজ্ঞাপনে মুসলিম পরিবারে এক হিন্দু মহিলার সাধ ভক্ষণ অনুষ্ঠান দেখায়। ঠিক সেইরকম শর্ত আরোপ করেছিল ওই মুসলিম যুবকের হিন্দু প্রেমিকা। শর্তগুলো ছিল নিম্নরূপ:-

(১) বিয়ের আগে বা পরে হিন্দু প্রেমিকা ইসলামে ধর্মান্তরিত হবে। সারা জীবন হিন্দু হিসেবে জীবন কাটাবে।

(২) বিয়ের পরে নিজের হিন্দু নাম পরিবর্তন করবে না।

(৩) বিয়ের পরে স্বামীর বাড়িতে হিন্দুদের নানা পূজা-পদ্ধতি পালন করবে এবং সে কাজে যেন কেউ বাধা না দেয়।

(৪) তাকে কোনোদিন কোনোভাবেই বোরখা পরতে বাধ্য করা যাবে না।

(৫) তাঁর স্বামী অর্থাৎ আমি(চিঠি লেখা মুসলিম যুবক) স্ত্রী বেঁচে থাকা অবস্থায় দ্বিতীয় বিয়ে করতে পারবো না।

(৬) বিবাহ বিচ্ছিন্নের ঘটনার ক্ষেত্রে তালাক দেওয়া যাবে না। বরং আইন অনুযায়ী ডিভোর্স কেস হবে।

(৭) সমস্ত শর্তগুলো নিকাহনামায় উল্লেখ করতে হবে এবং সামাজিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বিবাহ সম্পন্ন হবে।

এই প্রশ্নগুলো করে দারুল উলুম দেওবন্দের কাছে ওই মুসলিম যুবক জানতে চেয়েছিল যে ইসলামের আইন অনুযায়ী এই বিয়ে করা উচিত হবে কিনা।

ছবি: দারুল উলুম দেওবন্দের দেওয়া উত্তর

তার উত্তরে দেওবন্দের দারুল ইফতা জানিয়েছে যে, ইসলাম অনুযায়ী এই বিয়ে বৈধ নয়। বরং এই বিয়ে ইসলাম বিরোধী। তাছাড়া, কোনোভাবেই ওই শর্তগুলো নিকাহনামায় উল্লেখ করা যাবে না। পাশাপাশি ওই মুসলিম যুবককে দারুল উলুম দেওবন্দের উপদেশ যে, একে অপরকে ভুলে যাওয়াই ভালো। সেই সঙ্গে মুসলিম যুবককে বলা হয়েছে যে সে অপেক্ষা করলে ভালো মুসলিম মেয়ে পাবে বিবাহ করার জন্য।

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here