গত ১ বছরে পশ্চিমবঙ্গে গ্রেপ্তার হওয়া জঙ্গিদের তালিকা

0
170

অনেককেই বলতে শোনা যায়, সন্ত্রাসের কোনো ধর্ম হয়না। সন্ত্রাসবাদীর কোনো ধর্ম হয়না। একথা শুনতে খুব ভালো লাগলেও যুক্তিতে টেকে না।

তবুও কিছু মানুষ এই কথাগুলিকে বারবার আউড়ে চলেন। অনেকে নিজেদের স্বার্থসিদ্ধির জন্য বলেন। আবার অনেকে নিজেদের বিরাট সেক্যুলার প্রমান করতে এইসব বলে থাকেন। কিন্তু তাতে সন্ত্রাসবাদী, কিংবা ইসলামিক কট্টরপন্থী জিহাদিদের কোনো কিছু যায় আসে না।

এত সেক্যুলারিজম-এর হওয়া তোলার পরেও জঙ্গির সংখ্যা কমছে না। জানেন কি, ২০১৯ সালের জুন থেকে ২০২০ সালের সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত, সম্প্রীতির স্বর্গ এই পশ্চিমবঙ্গে কতজন জঙ্গি গ্রেপ্তার হয়েছে??

সেই তালিকা রইলো আমাদের পাঠকদের জন্য:-

১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ :-

(১) নাজমুস সাকিব, (২) আবু সুফিয়ান, (৩) মইনুল মন্ডল, (৪) লিউ ইয়ান আহমেদ, (৫) আল মামুন কামাল এবং (৬) আতিউর রহমান।

এরা সকলেই আল কায়দার সদস্য। এদের সকলকেই গ্রেপ্তার করেছে NIA।

৮ই জুন, ২০২০:-

শেখ রেজাউল ওরফে কিরণ । শেখ রেজাউল জামাত উল মুজাহিদিন (বাংলাদেশ)-এর সদস্য।

কলকাতা পুলিসের এসটিএফ একে গ্রেপ্তার করেছিল।

২৮শে মে, ২০২০ :-

আব্দুল করিম ওরফে বড়ো করিম। বড়ো করিম জামাত উল মুজাহিদিন (বাংলাদেশ)-এর সদস্য।

কলকাতা পুলিসের এসটিএফ একে গ্রেপ্তার করেছিল।

১৯শে মার্চ, ২০২০ :-

বাদুড়িয়া থেকে গ্রেপ্তার হয় কলেজ ছাত্রী তানিয়া পারভীন। তানিয়া লস্কর-ই-তইবার সক্রিয় জঙ্গি।

পশ্চিমবঙ্গ পুলিসের এসটিএফ তাকে গ্রেপ্তার করে।

১৬ই ডিসেম্বর, ২০১৯ :-

মোশারেফ হোসেন। সে জামাত উল মুজাহিদিন(বাংলাদেশ)- এর সদস্য।

NIA তাকে গ্রেপ্তার করে।

১লা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ :-

আব্দুল রেহমান। আব্দুল জামাত উল মুজাহিদিন(বাংলাদেশ)- এর সদস্য।

আব্দুলকে কলকাতা পুলিসের এসটিএফ গ্রেপ্তার করে।

১০ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ :-

আসাদুল্লা শেখ ওরফে রাজা। আসাদুল্লা জামাত উল মুজাহিদিন(বাংলাদেশ)- এর সদস্য।

তাকে কলকাতা পুলিসের এসটিএফ গ্রেপ্তার করে।

৩রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ :-

আব্দুল বারি এবং নিজামুদ্দিন খান। এরা দুজনেই জামাত উল মুজাহিদিন(বাংলাদেশ)- এর সদস্য।

এদেরকে কলকাতা পুলিসের এসটিএফ গ্রেপ্তার করে।

২রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ :-

মহম্মদ আব্দুল কাশেম। কাশেম জামাত উল মুজাহিদিন(বাংলাদেশ)- এর সদস্য।

আব্দুল কাশেমকে কলকাতা পুলিসের এসটিএফ গ্রেপ্তার করে।

২৬শে আগস্ট, ২০১৯ :-

ইজাজ আহমেদ। ইজাজ জামাত উল মুজাহিদিন(বাংলাদেশ)- এর সদস্য।

কলকাতা পুলিসের এসটিএফ গ্রেপ্তার করে ইজাজকে।

২৪শে জুন, ২০১৯ :-

(১) জিয়াউর রহমান, (২) মামিনুর রশিদ, (৩) মহম্মদ শাহীন আলম এবং (৪) রবিউল ইসলাম। এরা সকলেই জামাত উল মুজাহিদিন(বাংলাদেশ)- এর সদস্য।

এদেরকে গ্রেপ্তার করে কলকাতা পুলিসের এসটিএফ।

If you love our work, you can support us by donating a small amount. Thank you.

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.