বাংলাদেশ: টাঙ্গাইলে উপজাতি মহিলার ফলের বাগান নষ্ট করে দিলেন মুসলিম অফিসার

রাষ্ট্রীয় মদতে বাংলাদেশের সংখ্যালঘু হিন্দু-বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের মানুষজনের ওপর অত্যাচার কোনো নতুন ঘটনা নয়। বিভিন্ন প্রশাসনিক দপ্তরের মুসলিম অফিসারের দ্বারা বঞ্চিত ও নির্যাতিত হন সেদেশের সংখ্যালঘুরা। এবার তাদের হাত থেকে রক্ষা পাচ্ছেন না দেশের উপজাতি মানুষজন। বিনা কারণে ও আইনি নোটিশ ছাড়াই লোকজন নিয়ে এসে এক উপজাতি মহিলার চাষের জমি ধূলিসাৎ করে দেওয়া হলো। ঘটনা টাঙ্গাইল জেলার।

টাঙ্গাইল জেলার মধুপুর উপজেলাধীন ১১ নং শোলাকুড়ী ইউনিয়নের  পেগামারী গ্রামের এইসব জমিতে আদিবাসীরা বংশপরম্পরায় বসবাস ও চাষাবাদ করে আসছে। এই ধারাবাহিকতায় গত ফেব্রুয়ারিতে বাসন্তী রেমা তাঁর ৪০ শতাংশ আবাদি জমিটিতে কলা চাষ করেন। কিন্তু আগামীকাল ১৪ সেপ্টেম্বর সকাল ১০ টার দিকে হঠাৎকরে বিনা নোটিশে বন বিভাগের সহকারী কমিশনার জামাল হোসেন তালুকদারের নেতৃত্বে বাসন্তী রেমার ওই জমির সকল কলা গাছ কেটে ফেলা হয়। যার আবাদি মূল্য প্রায় ৩ লক্ষ টাকা। 

ইতিমধ্যে এই ঘটনার প্রতিবাদে সরব হয়েছেন স্থানীয় মানুষজন। তাঁরা ওই উপজাতি মহিলাকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন। পাশাপাশি, অভিযুক্ত অফিসারের শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!