দুর্গা পূজায় ৩ দিনের ছুটির দাবি জানালো জাতীয় হিন্দু মহাজোট

বাঙালীর বৃহত্তম ধর্মীয় অনুষ্ঠান দুর্গা পূজা। কিন্তু সংখ্যাগরিষ্ঠ ইসলামিক জনগণের রাষ্ট্র বাংলাদেশ দুর্গা পূজাতে মাত্র এক দিনের সরকারি ছুটি দেয়। ফলে নিজেদের ধর্মীয় অনুষ্ঠান পালন করা থেকে বঞ্চিত থাকেন সেদেশের সংখ্যালঘু বাঙ্গালী জনগণ। তাই তাদের দীর্ঘদিনের দাবি দুর্গা পূজার তিন দিনের ছুটি ঘোষণা করুক সরকার। এবার সেই দাবিতে সরব হলো সেদেশের অতি পরিচিত হিন্দু সংগঠন ‛বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট’।

গতকাল এই দাবিতে ঢাকার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে একটি মানব বন্ধন করে সংগঠনটি। তাদের দাবি ছিল যে, একদিন ছুটি দেওয়ার মাধ্যমে সরকার দেশের হিন্দুদের ধর্মীয় আচার পালন থেকে বঞ্চিত করছে। কারণ, দুর্গা পূজাই যখন চার দিনের ধর্মীয় অনুষ্ঠান। কিন্তু বাংলাদেশ সরকার বরাবরই হিন্দু সম্প্রদায়ের ধর্মীয় অনুভূতিকে অস্বীকার করে এসেছে। ফলে অতীতে একাধিকবার দাবি উঠলেও একদিনের বেশি সরকারি ছুটি দেয়নি সরকার। ফলে এবার এই দাবিতে পথে নেমেছে ‛বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট’।

তবে এই দাবি সরকার মেনে নেবে কিনা, এ বিষয়ে সন্দেহ রয়েছে। কারণ শেখ মুজিবরের অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের স্বপ্ন চুরমার করে বাংলাদেশ এখন এক চরম হিন্দু বিরোধী, সাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র। এতটাই সাম্প্রদায়িক যে, মন্দিরে হামলা, মূর্তি ভাঙচুর কিংবা হিন্দু মেয়েদের অপহরণ সেখানে নিত্যদিনের ঘটনা। ফলে দুর্গা পূজায় তিনদিনের ছুটি দেওয়ার সম্ভাবনা প্রায় নেই বললেই চলে। তবে মহাজোটের আন্দোলন সে দেশের হিন্দুদের মনে আশা জাগিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!