কেন আমি নেহেরু-গান্ধীদের ঘৃণা করি- প্রথম পর্ব

© বিরিঞ্চি বন্দ্যোপাধ্যায়

যদি আপনাকে প্রশ্ন করা হয় ভারত কতো বছর বিদেশি শাসকদের অধীনে ছিল,আপনি হয়তো বলবেন ১০০০ বছর, ৭০০ ইসলামের আর ৩০০ বছর ব্রটিশের শাসন ব্যবস্থার অধীনে থাকবার পর ১৯৪৭ সালের ১৫ই আগষ্ট ভারত বিদেশি শাসন মুক্ত হয়।
কিন্তু আমি বলবো ভারত এখনো বিদেশি শাসকদের নিয়ন্ত্রণেই চলছে,হয়তো প্রত্যক্ষ নয় তবে পরোক্ষ ভাবেই অবশ্যই আমরা আজও পরাধীন। 
 বহুবছর পরাধীন থাকবার পর যখন কোন দেশ স্বাধীনতা অর্জন করে তখন তাদের প্রধান কর্তব্য হয় নিজেদের হারানো গৌরব ও সংস্কৃতিকে আবার পুনরায় প্রতিষ্ঠা করা।কিন্তু ভারতে তা হয়নি বরং নিজেদের ইতিহাসকে ভুলিয়ে বা বিকৃত করে বিদেশি শাসকদের ইতিহাসকে গৌরবময় করে তুলে ধরা হয়েছে ভারতে চাচা নেহেরুর নেতৃত্বে, যে কাজ তিনি সম্পাদিত করেছিলেন মৌলানা আবুল কালাম আজাদের তত্ত্বাবধানে। 


কে এই মৌলনা যিনি বিন্দুমাত্র ভারতীয় সংস্কৃতির ব্যাপারে না জেনেও স্বাধীন ভারতের প্রথম শিক্ষামন্ত্রী হয়ে ভারতের ইতিহাস বিকৃত করে গেছে।আসুন একটু পরিচয় করা যাক মৌলানা সাহেবের ব্যাপারে।
মৌলনা সাহেবের আসল নাম “সৈয়দ গুলাম মুহিউদ্দিন আহমেদ বিন খায়েরুদ্দিন আল হুসায়নি ” যার জন্ম আরবের ১৮৮৮ সালে মক্কা শহরে। তদানীন্তন অটোমান সাম্রাজ্যের অংশ এবং যার শৈশব কেটেছে আরবে। ১৮৯৮ সালে, তাঁর বাবা ভারতে এসে কলকাতায় বসতি স্থাপন করেছিলেন।  আজাদ এমন পরিবারে লালিত-পালিত হয়েছিল যেখানে উর্দুর চেয়ে আরবি ও ফারসি বেশি ব্যবহৃত হত।  তাকে ফারসি ও আরবি ভাষায় আনুষ্ঠানিক শিক্ষা দেওয়া হয় এবং তার স্কুল শিক্ষার পরে ১৭ বছর বয়সে তাকে মিশর পাঠানো হয়েছিল আল আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করার জন্য যা ৯৭০ সালে একটি মাদ্রাসা হিসাবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল এবং কেবল ১৯৬১ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ের মর্যাদা লাভ করে।  এই মাদ্রাসার ছাত্ররা ইসলামিক আইন অধ্যয়ন করে।  এর মিশন ছিল ইসলাম ও সংস্কৃতি প্রচার করা।  দু’বছর মাদ্রাসায় প্রশিক্ষণ শেষে আজাদ ১৯০৭ সালে ভারতে ফিরে আসেন এবং খিলাফত আন্দোলনে যোগ দেন পরে কংগ্রেসে।

ভাবুন একবার একজন আরব জাতির মাদ্রাসার শিক্ষায় শিক্ষিত মানুষ, যে শিক্ষা পেয়ে ইসলামের, যে ভারতীয় সভ্যতা, সংস্কৃতি, ইতিহাস কিছুই জানেনা যে কেবল একজন সাধারণ কোরানের হাফিজ তিনি তৈরি করেছেন স্বাধীন ভারতের শিক্ষার রূপরেখা আর তার প্রগাঢ় ইসলিমক দৃষ্টিতে আমরা নিজের ইতিহাস জানছি এর থেকে হতাশার আর কি হতে পারে?

(ক্রমশঃ)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!