হুগলির তেলেনিপাড়ায় হিন্দুদের বাড়ি-ঘরে হামলা ও ভাঙচুর করলো মুসলিম দুষ্কৃতীরা

1
342
ছবি: ভাঙচুর হওয়া ঘর

হুগলি জেলার তেলেনিপাড়ায় হিন্দুদের বাড়ি-ঘরে হামলার ঘটনা ঘটলো। গতকাল ১০ই মে, রবিবার রাতে একদল মুসলিম দুষ্কৃতী ওই এলাকার হিন্দুদের বাড়ি-ঘর লক্ষ্য করে প্রচুর ইট, পাথর ও কাঁচের বোতল ছুড়তে থাকে। ইটের আঘাতে অনেক হিন্দুদের বাড়ির টালীর চাল, জানালার কাঁচ ভেঙে যায়। হামলায় এলাকার বাসিন্দারা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। দীর্ঘ সময় ধরে এই হামলা চলতে থাকে। স্থানীয় বাসিন্দাদের কয়েকজন জানিয়েছেন, মুসলিম দুষ্কৃতীরা লাগাতার হিন্দুদের বাড়ি ঘর লক্ষ্য ইটের টুকরো, কাঁচের বোতল ছুড়তে থাকে। আজ সকালেও এলাকার রাস্তায় ইটের টুকরো, বোতল ভাঙার কাঁচের টুকরো পড়ে থাকতে দেখা যায়। অসমর্থিত সূত্রের খবর, এলাকায় প্রচুর পুলিস মোতায়েন করা হয়েছে।

ছবি: পড়ে থাকা ইটের টুকরো

হুগলির সাংসদ লকেট চ্যাটার্জি আজ আক্রান্ত মানুষের সাথে দেখা করতে ওই এলাকায় যেতে চেয়েছিলেন। কিন্তু তাঁর অভিযোগ, তাকে ওই এলাকায় যেতে দেওয়া হয়নি। তিনি পুরো ঘটনায় স্থানীয় এক মুসলিম নেতার বিরুদ্ধে অভিযোগের আঙ্গুল তুলেছেন। লকেট চ্যাটার্জির অভিযোগ, ১৪ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলার ফিরোজ খানের নেতৃত্বে হিন্দুদের ওপর পরিকল্পনামাফিক হামলা চালানো হয়েছে। তাঁর আরও অভিযোগ, কয়েকজন হিন্দুর বাড়ি-ঘর লুঠ করা হয়েছে, সোনার দোকান লুঠ করা হয়েছে। পুলিস কমিশনারের কাছে এলাকার আতঙ্কিত হিন্দুদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার অনুরোধ করেছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.

1 COMMENT

  1. মানুষের পাশে দাঁড়াতে গেলে অভিনয় দিয়ে হয় না । আমায় পুলিশ আটকে দিয়েছে। এটা একটা কথা। পুলিশের লাঠি খেয়ে এলাকায় যেতে পারেন নি কেন? শুধু মিডিয়ার সামনে বলছেন আমায় পুলিশ আটকেছে। শাঁখ ঘন্টা বাজিয়ে গেলে পুলিশ রাস্তা খুলে দেবে ? লকেট ম্যডামকে বলা জিনিষ টা ভাল হলো না। মাথায় পুলিশের লাঠি খেতে খেতে যাওয়া উচিত ছিল তেলেনি পাড়ায়।

Comments are closed.