অমানবিক: সিলেটে মুসলিমদের ত্রাণ দেওয়া হলেও দুঃস্থ হিন্দুদের ত্রাণ দেওয়া হলো না

0
199

করোনা ভাইরাসের আক্রমণে যখন বিশ্ব সংকটময় পরিস্থিতিতে, তখন অমানবিক আচরণ করা হলো বাংলাদেশের সংখ্যালঘু হিন্দুদের সঙ্গে। শুধুমাত্র হিন্দু হওয়ার অপরাধে ত্রাণ সামগ্রী দেওয়া হলো না দুঃস্থ হিন্দুদের। ঘটনা বাংলাদেশের সিলেটের ওসমানী নগরের।

জানা গিয়েছে, গত ৩রা এপ্রিল, শুক্রবার জুম্মার নামাজের পর সিলেটের ওসমানী নগরের একটি মসজিদে ত্রাণ বিতরণ শুরু হয়। ত্রাণ বিতরণে দুঃস্থ মানুষদের হাতে চালের প্যাকেট তুলে দেওয়া হচ্ছিল। উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় ইমাম, মাওলানা ও বিএনপি নেতারা। এছাড়াও, উপস্থিত ছিলেন পল্লী বিদ্যুৎ দপ্তরের কর্মকর্তা কামরুল ইসলাম। একের পর এক মুসলিমদের নাম ঘোষণা করে চালের প্যাকেট তুলে দেওয়া হচ্ছিল তাদের হাতে।

মসজিদে ত্রাণ বিতরণের খবর পেয়ে এলাকার কিছু দুঃস্থ হিন্দু মানুষজন ওখানে আসেন। তখন তাদের বলা হয় এই ত্রাণ হিন্দুদের জন্য নয়। কামরুল ইসলাম বলেন, ‛আপনারা আইসেন না, কোনো হিন্দুর নাম নেই এখানে।’ মসজিদে ত্রাণ বিতরণের অনুষ্ঠান শাহ জালাল নামে এক ব্যক্তি ফেসবুকে লাইভ করেন। পরে সেই ভিডিও ভাইরাল হয়ে যায়। তারপরেই নিন্দার ঝড় উঠেছে। বহু ব্যক্তি এই অমানবিক ঘটনার নিন্দা করেছেন। অনেকের বক্তব্য, ক্ষুধা কি শুধু মুসলমানদের হয়? হিন্দুদের ক্ষুধা নেই??

We are not big media organisation. Your support is what keeps us moving. Don't hesitate to contribute because, work, for society needs society's support. Jai Hind.