স্বামী ডিটেনশন ক্যাম্পে বন্দি ২ বছর, অপেক্ষায় মানসিক ভারসাম্য হারিয়েছেন নিঃস্ব চঞ্চলা

  NRC- এর ফলে বাঙালি হিন্দুর দুর্দশার একের পর এক খবর আসছে আসাম থেকে। সমস্ত বৈধ নথিপত্র থাকা সত্বেও ২ বছরেরও বেশি সময় ধরে শিলচর ডিটেনশন ক্যাম্পে বন্দি স্বামী হরেন্দ্র আচার্য(৭০)। স্বামীর মুক্তির অপেক্ষায় থেকে মানসিক ভারসাম্য হারিয়েছেন নিঃস্ব বৃদ্ধা চঞ্চলা আচার্য। 

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, হরেন্দ্র আচার্য এবং চঞ্চলা আচার্য জিরিঘাট কলোনির ৬ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা। ওই দম্পতি নিঃসন্তান। ওনাদের সমস্ত বৈধ নথিপত্র রয়েছে। এমনকি উনাদের Migration Card(১৯৪৬) এবং সরকারি অনুদান পাওয়ার সমস্ত নথিপত্র রয়েছে। কিন্তু ২ বছর আগে হঠাৎই বিদেশি নোটিশ আসে উনার স্বামীর নামে। নিজেকে ভারতীয় প্রমান করার জন্য আদালতে মামলা লড়ার মতো সামর্থ্য ছিল না গরিব পরিবারের। ফলে গ্রেপ্তার করে ডিটেনশন ক্যাম্পে পাঠানো হয় উনাকে। ঘরে থাকা অসহায় চঞ্চলা স্বামীকে মুক্ত করতে কিছুই করতে পারেননি। অগত্যা স্বামীর অপেক্ষায় দিন গুনছেন বৃদ্ধা চঞ্চলা। অপেক্ষা করতে করতে মানসিক ভারসাম্য হারিয়েছেন তিনি। স্বামীর কথা জিজ্ঞেস করায় চোখের জলে বিড়বিড় করে আনমনা হয়ে কিসব বলে চলেন তিনি। জানেন না তাদের এক চিলতে বেড়ার ঘরে স্বামী কোনোদিন ফিরবেন কিনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!